বন্দি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া ‘স্ট্রোকে আক্রান্ত’

ঢাকা: দুর্নীতির মামলায় কারাদণ্ডের সাজা কাটানোর মাঝেই গুরুতর অসুস্থ বাংলাদেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া৷ তিনি‘মাইল্ড স্ট্রোক’ এ আক্রান্ত হয়েছিলেন৷ শনিবার কারাবন্দি বিএনপির সুপ্রিমোর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এমই দাবি করেছেন৷ বিবিসি সহ বাংলাদেশের সব সংবাদ মাধ্যমে এই খবর প্রকাশিত হতেই রাজনৈতিকভাবে ক্ষমতাসীন আওয়ামি লিগের বিরুদ্ধে নেমে পড়েছে বিরোধী বিএনপি শিবির৷

বিবিসি বাংলা জানাচ্ছে, শনিবার বিকেলে বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে পুরোনো ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে সাক্ষাৎ করেন তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ঢাকা মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক এফ এম সিদ্দিকী। পরে তিনি সাংবাদিকদের জানান, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন গত ৫ জুন হঠাৎ করে পড়ে গিয়েছিলেন। তিনি ওই সময়টার কথা বলতে পারছেন না। তার একটি মাইল্ড স্ট্রোক হয়েছে বলে আমাদের কাছে প্রতীয়মান হচ্ছে।’

বিএনপি নেত্রীর অসুস্থতার বিষয়টি নিশ্চিত হতে আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য তাকে জেলের বাইরে একটি হাসপাতালে চিকিৎসার সুপারিশ করেছেন চিকিৎসকরা৷ তাঁরা আরও জানান, ‘উনি মাঝেমাঝেই ব্যালেন্স রাখতে পারেন না, মনে হয় যে উনি পড়ে যাবেন। এজন্য খুব দ্রুত সব ধরণের পরীক্ষা-নিরীক্ষার সুবিধা আছে এমন হাসপাতালে দ্রুত ভরতি করার পরামর্শ দিয়েছি আমরা।’

- Advertisement -

গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে বহু চর্চিত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের সাজাপ্রাপ্ত হয়ে পুরোনো ঢাকার কারাগারে বন্দি খালেদা জিয়া। েই জেলে তিনি একমাত্র বন্দি৷ তবে তাঁর জন্য ব্যক্তিগত পরিচর্যাকারী নিযুক্ত করা হয়েছে৷

খালেদা জিয়া অসুস্থ এমন দাবি বারবার করেছে বিএনপি৷ চাপে পড়ে সরকারের নির্দেশে গত এপ্রিল মাসে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চারজন চিকিৎসক খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে জেলে গিয়েছিলেন। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে নিয়ে পুনরায় তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। সেসময় বলা হয়েছিল, তিনি সুস্থ আছেন। যদিও বিএনপির পক্ষ থেকে বরাবরই দাবী করা হচ্ছে, দলটির নেত্রী অসুস্থ।

Advertisement ---
---
-----