খুঁটি পুজোর মাধ্যমে সচেতনতার বার্তা

স্টাফ রিপোর্টার, হলদিয়া: শিল্পের শহর হলদিয়ায় প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। দূষিত হচ্ছে পরিবেশ। তাই এলাকায় দুর্ঘটনা এড়াতে এবং দূষণ মুক্ত পরিবেশ গড়ে তুলতে এগিয়ে এল হলদিয়ার পুজো উদ্যোগতারা। জন্মাষ্টমীর পূর্ণ তিথিতে হলদিয়ার চৈতন্য পুর ক্যাকটাস ক্লাবের নবম দুর্গাপূজার খুঁটি পুজো হল সোমবার।

খুঁটি পুজো উপলক্ষে পরিবহণ দফতরের সেভ ড্রাইভ সেফ লাইফ কর্মসূচীকে সামনে রেখে এদিন এলাকার মানুষ ও পথচলতি মানুষকে সচেতন করতে একটি সচেতনতা মিছিল বের হয়। সেই মিছিলের বার্তা ছিল সাবধানে গাড়ি চালান, গাড়ি চালানোর সময় মাথায় হেলমেট পরুন এবং সিট বেল্ট লাগিয়ে গাড়ি চালান।

- Advertisement -

 

 

সচেতনতা মিছিলে এলাকার মানুষজন, পুজো উদ্যোগতারা এবং স্থানীয় সুতাহাটা থানার পুলিশ, সিভিক ভলান্টিয়াররা সামিল হয়েছিলেন। এদিন এলাকার প্রায় ৫ কিমি পথজুড়ে মিছিল হয়। মিছিলে অন্যান্যদের সঙ্গে পায়ে পা মেলান জেলা পরিষদের প্রাক্তন সভাপতি মধুরিমা মণ্ডল, হলদিয়া মহকুমা পুলিশ আধিকারিক তন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়, সুতাহাটা থানার ওসি জলেশ্বর তেওয়ারি সহ অন্যান্যরা।

 

সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ কর্মসূচীর মাধ্যমে এদিন পথচলতি ৩০ জন বাইক আরোহীর হাতে হেলমেট তুলে দেওয়া হয়। সেই সঙ্গে পথ চলতি গাড়িতে সচেতনতা মূলক স্টিকার মারা হয়। পথচারীদের নিরাপত্তার পাশাপাশি এলাকার পরিবেশকে দূষণ মুক্ত করার জন্য এলাকার সাধারণ মানুষের হাতে ৫০০ টি চারাগাছ তুলে দেওয়া হয়। হেলমেট, চারাগাছ বিতরণের পাশাপাশি সংস্থার খুঁটি পুজো উপলক্ষে রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হয়। এদিন প্রায় ৫০ জন রক্তদাতা রক্তদান করেন।

সংস্থার অন্যতম সদস্য সঞ্জীব দাস জানান, গত কয়েক বছর ধরে জেলায় থিম পুজো করে দর্শনার্থীদের নজর কেড়ে আসছি আমরা। রাজ্য সরকারের নানা উন্নয়নমুখী কাজকে সামনে রেখেই প্রতি বছর থিমের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই প্রতিমা তৈরি করে সুনাম অর্জন করে এসেছি। নবম বর্ষে আমাদের থিম ‘কন্যাশ্রী’। কন্যাশ্রীর কর্মকাণ্ডকে সামনে রেখে মণ্ডপ ও প্রতিমা সজ্জিত করা হবে। খুঁটি পুজোর মধ্যদিয়ে সেই কাজ শুরু হয়ে গেল।

পুজোতে বেশ কিছু কৃতি কন্যাশ্রীদের সম্মানিত করা হবে। সমাজ, সমাজের মানুষ সুস্থ ও সুন্দরভাবে থাকলেই তবেই পুজো অনন্দে ভরে উঠবে। তাই সমাজ ও সমাজের মানুষকে সুস্থ ও সুন্দরভাবে রাখতে আমাদের এই উদ্যোগ।

আরও পড়ুন: বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ কর্তাদের সন্তানরা উচ্চ শিক্ষা পাবে দিল্লিতে

সুতাহাটা থানার ওসি জলেশ্বর তেওয়ারি জানান, পথচলতি মানুষদের নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য আমাদের পক্ষ থেকেও নানা কর্মসূচী পালন করা হচ্ছে৷ পাশাপাশি পুজো উদ্যোগতাদের এই ধরণের সহযোগিতায় ভীষণভাবে খুশি। সমস্ত পুজো কমিটির কাছে আবেদন রাজ্য সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচিকে সামনে রেখে তারা যেন এগিয়ে চলে।

হলদিয়া ক্যাকটাস ক্লাবের পাশাপাশি এদিন মহিষাদল অন্বয় ক্লাবের খুঁটি পুজোর মধ্য দিয়ে ৪০ বছরের পুজোর ঢাকে কাঠি পড়ল। সোমবার থেকেই নিয়ম নিষ্ঠা মেনেই খুঁটি পুজোর মধ্য দিয়ে মহিষাদলের প্রাচীন পুজোর কাজ শুরু হল৷

Advertisement ---
---
-----