‘রূপান্তরকারী সন্তান জন্মানোর জন্য মেয়েদের জিন্স দায়ী’

প্রতীকী ছবি

তিরুঅনন্তপুরম: মেয়েরা জিন্স পড়লে সন্তান রূপান্তরকারী হয়ে জন্মায়৷ কোনও মূর্খ ব্যক্তি নয়৷ এহেন মন্তব্য করে বির্তকের কেন্দ্রবিন্দুতে সরকারি কলেজের এক শিক্ষক৷ ঘটনাটি বাম শাসিত কেরলের৷ বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই বিভিন্ন মহল থেকে তীব্র প্রতিক্রিয়া উঠে এসেছে৷ একজন শিক্ষক এভাবে নিজের নিম্নমানের মানসিকতার পরিচয় দিয়ে নারী জাতিকে এভাবে হেয় করতে পারেন কিনা তা নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে৷ সকলেরই দাবি, বিতর্কিত শিক্ষকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে৷

স্বাভাবিক ভাবেই কলেজ শিক্ষকের এই মন্তব্যে অস্বস্তিতে কলেজ কর্তৃপক্ষ৷ তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চলেছে বলে খবর৷ জানা গিয়েছে, কালাদি শহরের একটি কলেজের শিক্ষক রাজিথ কুমার৷ সম্প্রতি একটি সমাবেশে এসে কিছু মন্তব্য করেন৷ যেখান থেকে দানা বাধে বির্তকের৷

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ওই সমাবেশে এসে এখনকার দিনের সন্তানদের লিঙ্গ পরিবর্তন করার জন্য তিনি দুষেছেন বাবা মায়েদের৷ তাঁর ধারণা, মেয়েরা জিন্স পড়লে, ছেলেদের মতো আচরণ করলে সন্তান রূপান্তরকামী বা অটিজমের মতো রোগের শিকার হয়৷ বলেন, কোনও মহিলা যদি তার নারীত্বকে অবহেলা করে ছেলেদের মতো আচরণ করা শুরু করে তাহলে তার গর্ভের সন্তানের মধ্যে রূপান্তরাকারী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে৷ এখানেই থেমে থাকেননি৷ অটিজমের জন্য দায়ী করেন ছেলে মেয়েদের বিদ্রোহী হয়ে ওঠার মানসিকতাকে৷ বলেন, সেই জন্য তাদের সন্তানেরা অটিজম রোগের শিকার হয়৷

- Advertisement -

রজীথ এর আগেও এরকম অর্থ ও যুক্তিহীন মন্তব্য করেছেন৷ তবে এবার এই মন্তব্যের জন্য বিপদে পড়তে চলেছেন৷ শিক্ষামন্ত্রী কে কে শৈলজা একটি বিবৃতি জারি করে সব কলেজকে জানিয়ে দিয়েছেন যে কলেজের কোনও অনুষ্ঠানে রজীথকে যেন না ডাকা হয়৷

Advertisement ---
-----