কলকাতার এই পাঁচ জায়গা রাত হলেই সাহসী হয়ে ওঠে!

রাতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সাহসী হয় কলকাতার এই এলাকাগুলি। শুধু সাহসী হওয়াই নয়, গোটা রাত ধরে চলে মায়াবী আলোর সঙ্গে অবাধ নাচ। সঙ্গে অবশ্যই মদ্যপান তো রয়েছে।  এক নজরে দেখে নেওয়া যাক শহরের সেই জায়গাগুলি কোথায় কোথায় রয়েছে। সেখানে যাওয়ার খরচ কত? সাধ্যের মতো সাধ পূরণ কি? কি কি খাওয়ার খেতে পারেন সেখানে? পড়ুন-

১) Underground

- Advertisement -

আচার্জ জগদীশচন্দ্র বোস রোডে হোটেল হিন্দুস্তানের মধ্যে রয়েছে আন্ডারগ্রাউন্ড। কলকাতার অন্যতম পুরোন নাইট ক্লাবের মধ্যে একটি হল আন্ডারগ্রাউন্ড।  শুধু তাই নয়, টিনএজারদের কাছেও যথেষ্ট পছন্দের। লাউড মিউসিক আর লালনীল নিয়ন আলো অবশ্যই বারবার সেখানে টানে নতুন প্রজন্মকে। সঙ্গে তো অবশ্যই রয়েছে সুরাপানের সুযোগ। শুধু তাই নয়, জাপানিস কিংবা কোরিয়ান খাওয়ার খেতে চাইলে অবশ্যই সেরা ঠিকানা হতে পারে আন্ডারগ্রাউন্ড। সঙ্গে নর্থ ইন্ডিয়ার বিভিন্ন ডিস তো মিলবেই। দুজনে এখানে খেতে গেলে খরচ হবে মাত্র ৩০০০ টাকা।

২) Shisha

শহরের তরুণ প্রজন্মের আরও একটি পছন্দের নাইটক্লাব শিশা। ক্যামাক স্ট্রিটের অন্তত জনবহুল এলাকায় এই নাইট ক্লাবটি অবস্থিত। এশিয়ান এবং Finger Foods এর জন্যে একদিকে যেমন এই বারটি শহরবাসীর কাছে জনপ্রিয়। তেমনই অবাধ মদ্যপান করার জন্যেও বেশ সস্তা এই বার। দুজনের জন্যে খরচ পড়বে মাত্র ২৫০০ টাকা। অন্যদিকে, এখানকার ambience  অন্য যে কোনও বারের থেকে আলাদা। পাশাপাশি মিউসিক সিস্টেমও টিনএজারকে বারবার শিশাতে যেতে বাধ্য করে।

৩) Someplace Else

পার্ক স্ট্রিটের অন্যতম সেরা পাঁচতারা হোটেল পার্কের একটি অংশে রয়েছে Someplace Else। ব্রিটিশ পাবগুলির ধরনে এই পাবটিকে তৈরি করা হয়েছে। এই পাবে আসা প্রত্যেকের জন্যে কার্যত প্রত্যেকদিনই থাকে বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান। কখনও লাইভ মিউসিক আবার কখনও বিভিন্ন ধরণের লাইভ অনুষ্ঠান। শুধু তাই নয়, ড্রিংকস, লাঞ্চ কিংবা ডিনারেও রাখা হয় অভিনবত্ব।

৪) Tantra

পার্ক হোটেলেরই আরও একটি নাইট ক্লাব বা ডিস্ক হচ্ছে তান্ত্রা। বেশিরভাগ টিনএজারের কাছে নাকি এটাই সেরা নাইটক্লাব। এই ক্লাবের ডান্স ফ্লোরটাই নাকি তরুণপ্রজন্মকে বারবার তান্ত্রাতে নিয়ে যায়। অ্যালকোহল নিয়ে দুজনে এই ক্লাবে গেলে খরচ পড়বে মাত্র ৩৫০০ টাকা। যদিও কোনও উৎসব কিংবা শনিবার এবং রবিবার খরচ একটু বেশি পড়তে পারে।

৫) Roxy

বন্ধু কিংবা সবথেকে কাছের বন্ধুকে যদি কোনও নাইট ক্লাবে আপনি নিয়ে যেতে চান তাহলে অবশ্যই সেরা ঠিকানা হতে পারে Roxy। এই ক্লাবের ডান্স ফ্লোর এতটাই বড় যে, এক সঙ্গে বহু মানুষ লাউন্ড মিউসিকের সঙ্গে শরীর নাচাতে পারবে। শুধু তাই নয়, খাওয়াদাওয়া এবং এই ক্লাবের অ্যামিয়েন্স বারবার আপনাকে সেখানে টেনে নিয়ে যেতে বাধ্য। আর এর সঙ্গে তো রয়েছেই সুরার বিভিন্ন কালেকশন। যা আপনাকে একবার হলেও সুরার গ্লাসে চুমুক দিতে বাধ্য করবে। দুজনে গেলে এই ক্লাবে খরচ পড়বে মাত্র ৩০০০ টাকা।

* উপরের প্রত্যেকটি ক্লাব বা ডিস্কোই খোলা থাকে গভীর রাত পর্যন্ত।  চলে রাত পর্যন্ত খাওয়াদাওয়া। সঙ্গে অদ্যাম নাচ!

Advertisement ---
---
-----