শুক্রের সকালেই ভালো খবরে বুক বাঁধছেন রাজ্য সরকারি কর্মীরা

ফাইল ছবি

কলকাতা:  শুক্রের সুসংবাদ শুনতে পারেন রাজ্য সরকারি কর্মীরা! কারণ সকালেই ডিএ সংক্রান্ত মামলার চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করতে পারে কলকাতা হাইকোর্ট। মামলার শুনানি যেভাবে এগিয়েছে তাতে রায় তাঁদের দিকে যাবে বলে ইতিমধ্যে আশায় বুক বেঁধেছেন রাজ্য সরকারি কর্মীরা। যদিও শেষমেশ রায় কলকাতা হাইকোর্ট কি জানায় সেদিকেই তাকিয়ে এখন রাজ্যের সরকারি কর্মীরা। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামীকাল শুক্রবার সকাল ১১টায় ডিএ সংক্রান্ত মামলার রায় ঘোষণা করতে পারে কলকাতা হাইকোর্ট।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে ডিএ সংক্রান্ত মামলা হয় আদালতে। ২০১৬-র ১ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ডিএ যখন ছিল ১২৫ শতাংশ, সেই সময় রাজ্যের কর্মীদের ডিএ ছিল ৭৫ শতাংশ। এই মুহুর্তে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা ১৪৭ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা পাচ্ছেন। আর রাজ্যের কর্মীরা পাচ্ছেন ১০০ শতাংশ হারে। কেন্দ্রীয় কর্মীদের সঙ্গে রাজ্যের কর্মীদের ডিএ-র ব্যবধান ৪৭ শতাংশ। রাজ্য সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী, জানুয়ারি থেকে রাজ্যের কর্মীরা ১২৫ শতাংশ হারে মহার্ঘভাতা পাবেন। যদিও সেই সময় থেকে কেন্দ্রীয় কর্মীরা আরও এক কিস্তি মহার্ঘভাতা পাওয়া হয়ে যাবে। ফলে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের সঙ্গে ক্রমশ ফারাক বাড়ছে রাজ্য সরকারি কর্মীদের সঙ্গে।

আর এই সব নিয়েই রাজ্যের কর্মীদের তরফে ২০১৭-তে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনালে আবেদন করা হলে, সেখান থেকে জানানো হয়, রাজ্য সরকারি কর্মীদের অধিকারের মধ্যে ডিএ পড়ে না। এরপর স্বপন কুমার দে নামে রাজ্য সরকারি কর্মী হাইকোর্টে মামলা করেন।

- Advertisement -

সেই সময়কার হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নিশীথা মাত্রে ও তপোব্রত চক্রবর্তীর ডিভিশন বেঞ্চে শুনানি হয় একাধিকবার। নিশীথা মাত্রে অবসর নেওয়ার পর মামলাটি দেবাশিস করগুপ্ত এবং ববি শরাফের বেঞ্চে যায়। এই বেঞ্চেও একাধিকবার শুনানি হয়। সব মিলিয়ে এই মামলায় ৩৪ বার শুনানি হয়েছে। হয়েছে একাধিকবার সওয়াল জবাব। তা শেষে এবার রায় ঘোষণা করবে হাইকোর্ট।

(তথ্যসূত্র- বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম-ইন্টারনেট)

Advertisement ---
---
-----