বকেয়া ফাইন আদায়ে ব্যাপক সাড়া পুলিশের ছাড়ে

সোয়েতা ভট্টাচার্য, কলকাতা : এক সপ্তাহের মধ্যেই কলকাতা ট্রাফিক পুলিশের ছাড়ে অভাবনীয় সাড়া দিল শহরবাসীরা৷ লালবাজার সুত্রে খবর পাঁচ লক্ষেরও বেশী কেসের ফাইন আদায় করা সম্ভব হয়েছে এই পদ্ধতির মাধ্যমে৷ এর মধ্যে থেকে একাধিক কেসের ফাইন দীর্ঘদিন ধরে বাকি ছিল বলেো জানা যাচ্ছে৷ কলকাতা পুলিশের এক কর্তা জানান,”আমরা নিজেরাও ভাবতে পারিনি এই হারে মানুষ এই স্কীমে সারা দেবে৷ এই পদ্ধতির মাধ্যমে উভয় পক্ষেরই লাভ হচ্ছে৷ অনেক পুরোনো কেসের বাকি ফাইন পাওয়া যাচ্ছে৷”

অফলাইনের পাশাপাশি অনলাইনেও মানুষ অতি সক্রিয়তার সঙ্গে ফাইন জমা দিচ্ছেন৷ কলকাতা পুলিশের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইন সাধারন মানুষ এই সেটেলমেন্ট স্কীমের আঁওতায় ফাইনের মুল্য জমা দিতে পারছেন৷ পুলিশ সুত্রে জানা যাচ্ছে প্রায় দুগুন বেশী ফাইন প্রতিদিন জমা পরছে৷ এখনই প্রায় এই এই মুল্য কোটি ছাড়িয়েছে বলে জানা যাচ্ছে৷ শহরে কলকাতা পুলিশের ২৫ টি ট্রাফিক গার্ডেই এই ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ গার্ডগুলিতেও প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ ছাড় পেয়ে ফাইনের মুল্য জমা করছে৷

এই পদ্ধতির মাধ্যমে নিউ আলিপুরের এক বাসিন্দা ফাইনের মুল্য জমা করার পর জানান,” কলকাতা পুলিশের এই উদ্যোগ সত্যিই প্রসংশনীয়৷ এই পদ্ধতির মাধ্যমে আমাকে খুবই কম ফাইন দিতে হল৷ এই পদ্ধতির মাধে কোনও দালাল চক্রের ফাঁদে পরারও সম্ভাবনা নেই৷ মানুষ কলকাতা পুলিশের এই পদক্ষেপে উপকৃত হচ্ছে৷”

বকেয়া ট্রাফিক ফাইন আদায়ে নতুন এই স্কিম এনেছে কলকাতা পুলিশ৷ নয়া স্কিম অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বকেয়া জরিমানার টাকা মেটালে ৬৫ও ৫০ শতাংশ ছাড়ের সুযোগ মিলবে৷ পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার সাংবাদিক সম্মেলন করে এই ঘোষণা করেন৷

১ ডিসেম্বর থেকে দুই দফায় চালু হয় এই স্কিম৷ প্রথম ৪৫ দিনের মধ্যে যারা বকেয়া ফাইন মেটাবেন তাদের ৬৫ শতাংশ ছাড় মিলবে৷ অর্থাৎ ১০০ টাকা ফাইন বাকি থাকলে দিতে হবে কেবল ৩৫ টাকা৷ এই ছাড় মিলবে পরের বছর ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত৷ এর মধ্যে কোনও কারণে জরিমানার টাকা জমা দিতে না পারলে গাড়ির মালিকদের আরও একটা সুযোগ দেওয়া হবে৷ কিন্তু সেক্ষেত্রে ছাড়ের পরিমাণ সামান্য কমিয়ে আনা হয়েছে৷ দ্বিতীয় দফায় গাড়ির মালিকরা ফাইন জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ ছাড় পাবেন৷ এই ছাড় মিলবে ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত৷