বড় ম্যাচ না ডার্বি, এগিয়ে কে?

রাজিত দাস: ছুটির দিন সকাল থেকেই মেঘলা আকাশ৷ ভাদ্রের ভ্যাপসা গরমে পারদ নেমেছে কিছুটা৷ কিন্তু উষ্ণতা বাড়ছে  বাঙালির প্রিয় বড় ম্যাচকে কেন্দ্র করে৷ মানে ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগান দ্বৈরথ৷ একটা সময় এই বড় ম্যাচ ঘিরেই ছিল উন্মাদনা, আবেগ৷ চিংড়ি, ইলিশের দাম নির্ধারিত হত বাঙাল-ঘটির জেতা হারার উপর৷

আরও পড়ুন: বড় ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল ডাগআউটে চমক

- Advertisement -

সে দিন গিয়েছে৷ নতুন প্রজন্ম এখন টিভির দৌলতে মজে বিদেশী ফুটবলে৷ কৌলীন্য হারাচ্ছে কলকাতার ফুটবল৷ সেই সঙ্গে কলকাতা ময়দান থেকে ক্রমশ বিলুপ্ত প্রায় ‘বড় ম্যাচ’ শব্দটি৷ ৯০এর দশকেও চপ মুড়ি হাতে বাঙাল-ঘটির লড়াই মানেই একে অপরকে বড় ম্যাচে দেখে নেওয়ার হুমকি৷ জিতলে বাজিমাত৷ আর হারলে কোনও ক্রমে মুখ লুকানোর পালা৷ বড় ম্যাচ মানেই বুক দুরুদুরু৷

আরও পড়ুন: টিকিটের চাহিদা বৃদ্ধির জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে কৃতিত্ব দিলেন ইস্টবেঙ্গল কর্তা

কিন্তু বিশ্বায়নের গুঁতোয় চপ মুড়ি বদলে পাড়ায় পাড়ায় চাউমিন আর রোলের দোকান৷ হাতে স্মার্ট ফোন৷ তাই কালের নিয়মেই কলকাতা ফুটবলের শতাব্দী প্রাচীন ‘বড় ম্যাচ’ বদলে হয়ে গেল ‘ডার্বি’৷ কিন্তু হঠাৎ ডার্বি কেন? এই শব্দ তো ঘোড় দৌড় প্রতিযোগিতার মাঠে ব্যবহার করা হয়৷ হয়ত ইঁদুর দৌড়ে অভ্যস্ত হচ্ছে বাঙালি৷ নিজের জীবন যাপনের সঙ্গে মিল খুঁজে পেয়েছে ‘ডার্বি’ শব্দের মধ্যে দিয়েই?

আরও পড়ুন: বড় ম্যাচে হারের চাকা ঘোরাতে চান সুভাষ

Advertisement ---
---
-----