কৃষ্ণনগর : শুরু হয়ে গেল বারোদলের মেলার প্রস্তুতি। প্রত্যেক বছরের মতোই কৃষ্ণনগর রাজবাড়ী প্রাঙ্গনে শুরু হল মেলার প্রস্তুতি পর্ব। রাজবাটী প্রাঙ্গনে এই মেলার সূচনা করেছিলেন কৃষ্ণচন্দ্র নিজেই। তবে এবারের মেলার বিশেষ আকর্ষণ গোপাল ভাঁড়ের মেলা , যা ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে।

চৈত্র মাসের শেষ দিনে শুরু হবে বারোদলের মেলা। তার আগেই পুরোদমে শুরু গিয়েছে তার প্রস্তুতি। তবে রাজার সভাসদদের মধ্যে বিখ্যাত গোপালকে নিয়ে মেলার কারন বারোদলের মেলার ৩০০ বছরের পূর্তি। কারবালা মাঠেই চলছে গোপালভারের মেলা। এক হাতে ইলিশ অন্য হাতে মিষ্টি, এটাই গোপালের ট্রেডমার্ক লুক। কৃষ্ণচন্দ্রের রাজসভার রত্নের টাক, পেল্লায় ভুঁড়ি আর বেঁটে খাটো চেহারায় সদাই কৌতুকের ছাপ।

গোপাল ভাঁড় নামে আদৌ কেউ ছিলেন কিনা তা নিয়ে সহস্র বিতর্ক থাকলেও, তাঁকে ঘিরে মেলায় মেতে উঠেছে ৮ থেকে ৮০ প্রত্যেকে। কৃষ্ণনগর বাসী সারা বছর বারো দোলের মেলার জন্য অপেক্ষা করে থাকেন। তবে সে মেলা শুরু হতে এখনও বেশ কিছুদিন দেরী রয়েছে। তাই নয়া পাওনা রসিক গোপালের ওই মেলাকে নিয়েই মেতে উঠেছেন এলাকার মানুষ। নবাব আমলে ইতিহাস অনুযায়ী গোপাল কৃষ্ণনগরেরই বাসিন্দা ছিলেন। ইতিহাসের পাতায় জায়গা করতে নেওয়া এমন মানুষকে সাধারনের সঙ্গে আরও একটু মিশিয়ে দেওয়ার উদ্দেশেই এই গোপাল মেলার আয়োজন।

----
--