দিওয়ালিতে আলো জ্বলে উঠবে লাহোরের কৃষ্ণ মন্দিরে

লাহোর: দিওয়ালি মানেই দেশের কোনায় কোনায় জ্বলে ওঠে আলো। কোথাও মাটির প্রদীপ আবার কোথাও রঙমশালের রঙিন আলো। এই অমাবস্যার অন্ধকার ঢাকা পড়ে যায় আলোর রোশনাইতে। শুধু ভারত নয়, আলো জ্বলে পাকিস্তানেও। ‌এই ক’টা দিন সব বিভেদ ভুলে সেদেশের সংখ্যালঘু হিন্দুদের সঙ্গে মিশে যায় মুসলিম প্রতিবেশীরাও। এবারও তিন দিন ধরে দিওয়ালি পালন করবে লাহোরের ৫০০ হিন্দু পরিবার।

ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে দিওয়ালির প্রস্তুতি। তিনদিনের অনুষ্ঠানের শেষে হবে ‘দিওয়ালি মিলন পার্টি’। এরপর ধর্ম নির্বিশেষে সবাই একটি বিশেষ প্রার্থনায় যোগ দেবেন।

৭ নভেম্বর, বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে সেই দিওয়ালির অনুষ্ঠান। লাহোরের কৃষ্ণ মন্দিরে হবে সেই উৎসব। সেখানে যোগ দেবে ৫০০ হিন্দু পরিবারের সদস্যরা। তিনদিন ধরে পুজো হবে রাম, লক্ষী ও কৃষ্ণের। এই সময় নতুন কাপড়ে সাজানো হয় কৃষ্ণ মন্দিরের বিগ্রহকে। পাকিস্তান হিন্দু ওয়েলফেয়ার কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মানওয়ার চাঁদ জানান, এই উৎসবে যোগ দেন তাঁদের মুসলিম বন্ধু ও প্রতিবেশীরাও।

ছবি- everydaypakistan (instagram)

লাহোরে রয়েছে ১২টি হিন্দু মন্দির। সেখানকার স্থানীয় হিন্দুরাই দায়িত্ব নিয়ে প্রার্থনার ব্যবস্থা করেন। দিওয়ালিতে মূলত কৃষ্ণ মন্দিরে অনুষ্ঠান হলেও, অন্যান্য মন্দিরও সাজানো হবে বলে জানা গিয়েছে।

১১ নভেম্বর লাহোরের এক বড় হোটেলে হবে দিওয়ালি মিলন পার্টি। অনুষ্ঠানের শেষে প্রার্থনায় যোগ দেবেন সব ধর্মের মানুষ। সম্প্রীতি নিয়ে আলোচনাও হবে। হিন্দু ওয়েলফেয়ার কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মানওয়ার চাঁদ বলেন, দিওয়ালি একমাত্র অনুষ্ঠান যেখানে হিন্দুরা অন্যান্য ধর্মের মানুষের সঙ্গে মিলিত হওয়ার সুযোগ পায়।

----
-----