সবরীমালা মন্দির মামলায় শীর্ষ আদালতকে চ্যালেঞ্জ রাজ পরিবারের

নয়াদিল্লি: সবরীমালা মন্দিরের ঐতিহ্য বিপন্ন হচ্ছে শুধুমাত্র সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপে৷ মন্দিরের বিষয়ে হস্তক্ষেপ বন্ধ হোক৷ শীর্ষ আদালতকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এই মামলা দায়ের করল পান্দালাম রাজ পরিবার৷ হিন্দু ধর্মকে অপমান করার অভিযোগ তুলে মামলা দায়ের করল এই রাজ পরিবার৷

আরও পড়ুন- ভারতে কখন দেখা যাবে চন্দ্রগ্রহণ? জেনে নিন কয়েকটি বিষয়

রাজপরিবারের পক্ষের আইনজীবী জানান, ধার্মিক ঐতিহ্য নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপ করা অনুচিত৷ যুগ যুগ ধরে এই প্রথা চলে আসছে৷ মামলা,আইনের মধ্যে এই ঐতিহ্যকে ফেলাই উচিত নয়৷

- Advertisement -

বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের বেঞ্চে সবরীমালা মামলার শুনানি হয়৷ সেখানেই সবরীমালা মন্দিরের নিয়মকে সমর্থন করে প্রশ্ন-উত্তর পর্ব চলে৷ বলা হয়, সবরীমালা মন্দির কেরলের মানুষের বিশ্বাসের জায়গা৷ মহিলা প্রবেশ বিষয়টি কেবলই ঐতিহ্য মেনে৷ বৈষম্য বা অধিকার প্রসঙ্গ বিবেচ্য নয়৷

আরও পড়ুন- পুলিশসুপারের দফতরের সামনে ছাত্রনেতার দেহ রেখে বিক্ষোভ

ইতিমধ্যেই কেরল হাইকোর্ট সবরীমালা মন্দির চত্ত্বরে মহিলাদের প্রবেশে অনুমতি দিয়েছে৷ সুপ্রিম কোর্টে ১৮ জুলাইয়ের পর্যবেক্ষনের পরই মন্দির চত্ত্বরে মহিলাদের অবাধ প্রবেশের নির্দেশ দেয় কেরলের উচ্চ আদালত৷ এই রায়ের বিরুদ্ধে সরব হয় কেরলের বিভিন্ন হিন্দু সংগঠন৷

১৮ জুলাই সুপ্রিম কোর্ট পর্যবেক্ষণে বলে, সবরীমালা মন্দিরে মহিলারা প্রবেশ করতে পারবেন৷ সংবিধান অনুসারে পুজো বা প্রার্থনার অধিকার প্রত্যেক নাগরিকের৷ এরপরেই বিতর্ক শুরু হয়৷ বুধবারই মন্দির কমিটির পক্ষের আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভিও জানান, মসজিদেও মহিলাদের প্রবেশ নিষেধ, দেশের অনেক মন্দিরে পুরুষরাও প্রবেশ করতে পারে না৷

সুপ্রিম কোর্টের পর্যবেক্ষণ ও কেরল হাই কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে কেরলে হিন্দু সংগঠনগুলির আন্দোলন বড় আকার নিচ্ছে৷ ৩০ জুলাই কেরলে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে বেশ কয়েকটি হিন্দু সংগঠন৷

Advertisement ---
---
-----