স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: নবান্ন অভিযানে পুলিশের লাঠিচার্জের ঘটনার তীব্র নিন্দা করলেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র৷সোমবার আলিমুদ্দিনস্ট্রিটে সাংবাদিক সম্মেলন করেন তিনি৷সেখানে সূর্য মিশ্র বলেন, বিনা প্ররোচনায় যেভাবে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে তা থেকে একটা বিষয় প্রমাণ হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার বামেদের ভয় পেয়েছে৷এর প্রতিবাদে মঙ্গলবার রাজ্যজুড়ে বামেরা ধিক্কার মিছিল করবে বলে জানান তিনি৷একইসঙ্গে এদিনের ঘটনায় আহত হন বহু সাংবাদিক৷ সেই বিষয়েও দুঃখ প্রকাশ করেন সূর্য মিশ্র৷

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে নিচুতলার কর্মী সমর্থকদের মনোবল বাড়াতেই মূলত নবান্ন অভিযানের ডাক দেয় বামফ্রন্ট৷এদিন সেই অভিযানকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে রাজপথ৷ এই ঘটনায় শতাধিক বাম নেতা-কর্মী আহত হন৷রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়ের উপরও লাঠিচার্জ হয় বলে অভিযোগ৷তাঁকে পরে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে৷এছাড়াও ফরওয়ার্ড ব্লকের নরেন চট্টোপাধ্যায় সহ অন্যান্য শরিক দলের নেতারাও আহত হয়েছেন বলে এদিন দাবি করেন সূর্যকান্ত মিশ্র৷

এদিনের ঘটনায় বিধানসভার বামপরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী সহ বামেদের ২১ জন বাম বিধায়ককে গ্রেফতার করে পুলিশ৷এছাড়াও গ্রেফতার করা হয় সাংসদ মহম্মদ সেলিম সহ ও প্রাক্তন সাংসদ রামচন্দ্র ডোম সহ একাধিক প্রথম সারির নেতাদের৷সেই কারণেই আগামী দিনে বড় কোনও কর্মসূচি নেওয়া হবে কিনা সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি৷তবে আগামিকাল রাজ্যজুড়ে বামেরা ধিক্কার মিছিল করবে বলে জানান সূর্য মিশ্র৷পরবর্তিকালে দলে আলোচনা করে আরও বৃহত্তর আন্দোলনের পথে যে বামেরা হাঁটবে এদিন সেই ইঙ্গিতও দিয়ে রাখলেন সূর্য মিশ্র৷

বামেদের সোমবারের নবান্ন অভিযানে পুলিশের নির্বিচার লাঠিচার্জে জখম হয়েছে দু’শোর বেশি বাম সমর্থক৷ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তারা৷ অশান্তি ছড়ানো ও সরকারি সম্পত্তি নষ্টের অভিযোগে মোট ১২ জনকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ৷ তাদের বিরুদ্ধে দেওয়া হয়েছিল জামিন যোগ্য ধারা৷ পরে সকলকে মুক্তি দেওয়া হয়৷

----
--