স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: বাম-কংগ্রেস জোট নিয়ে শুরু থেকেই টালবাহান চলছিল। উপরমহলে জোট ঘোষণা হলে নীচুতলার কর্মীদের অনেকেই জোট নিয়ে অসন্তুষ্ট ছিলেন বলে সংবাদম মাধ্যমের খবর। এবার সরাসরি জোট নিয়ে বামেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে দিল্লিতে হাইকমান্ডের কাছে অভিযোগ জানাচ্ছে কংগ্রেস।

পূর্ব বর্ধমান জেলা কংগ্রেস সভাপতি আভাষ ভট্টাচার্য জানান, “বামফ্রন্ট একতরফাভাবেই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে। তাই ভদ্রলোকের শর্ত না মেনে এই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করায় আমরা দিল্লী হাইকমাণ্ডের কাছে অভিযোগ জানাচ্ছি। ”

২০১১ সালে তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে এবং ২০১৬ সালে সিপিএমের সঙ্গে কংগ্রেসের জোট নিয়ে রীতিমত ক্ষোভ ছিল কংগ্রেসের নিচুতলার কর্মীদের মধ্যে। এই দুটি জোট থেকে কংগ্রেসে লাভের থেকে লোকশান বেশি হয়েছে এমনটাই মনে করেন অনেকে। কংগ্রেসের ব্লক স্তরের থেকে জেলাকমিটির বৈঠকেও এব্যাপারে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। এরআগেও দুর্দিনের মধ্যে থাকা কংগ্রেসের কর্মীরা নিজেদের ঐতিহ্যকে তুলে ধরতে প্রদেশ নেতৃত্ব থেকে একেবারে সর্বভারতীয় নেতৃত্বের কাছেও দরবার করে জোটের বিরোধিতা করেছে।

আরও পড়ুন- ‘মানব প্রেমী’ দলের প্রার্থী হতে চান ‘শরতের আকাশ’ লক্ষণ

প্রসঙ্গত, শুক্রবার সন্ধ্যায় আলিমুদ্দিন স্ট্রীট থেকে ২৫টি আসনে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে বামফ্রন্ট। এই তালিকাতে রয়েছে দুই বর্ধমানে তিনটি আসনও। এই তিনটি আসনের একটিও কংগ্রেসকে ছাড়া হয়নি। এতেই ক্ষোভ বেড়েছে জেলা কংগ্রেসের। সিপিএমের সঙ্গে জোট করতে গিয়ে দুই বর্ধমান থেকে কংগ্রেস ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে যাবার আশঙ্কাও করেছেন কংগ্রেসের কর্মী-নেতৃত্বের একাংশ।

পূর্ব বর্ধমানের জেলা কংগ্রেস সভাপতি আভাষ ভট্টাচার্যও ক্ষোভের সঙ্গে জানান, আলোচনা চলছিল তার মাঝে তড়িঘড়ি করে প্রার্থী ঘোষণা করে ভদ্রলোকের কাজ করল না সিপিএম। ১৬ তারিখের মধ্যে গোটা বিষয়টি মিটে যাবার কথাও বলা হয়েছিল সেখানে একদিন আগেই এই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে কংগ্রেসকে অপমান করা হয়েছে।এব্যাপারে জেলা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে তাঁরা সর্ভারতীয় কংগ্রেস নেতৃত্বের কাছে অভিযোগ জানাবেন।