জলপাইগুড়ির গ্রামে ফের চিতাবাঘের আতঙ্ক

ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: ফের লোকালয়ে চিতাবাঘের আতঙ্ক। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় বাসিন্দারা রাত হলেই ঘর থেকে বের হচ্ছেন না।

ঘটনাটি জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের মণ্ডলঘাট গ্রাম পঞ্চায়েতের ব্রহ্মতলপাড়ার। তবে বৃহস্পতিবার বন দফতরের পক্ষ থেকে চিতাবাঘ ধরতে খাঁচা বসানো হয়েছে। কিন্তু বাসিন্দাদের আশঙ্কা, তার আগেই না কোনও বিপদ ঘটে যায়৷

আরও পড়ুন- ভিনরাজ্যে কাজে গিয়ে মৃতদের দেহ ফিরল বাড়িতে

- Advertisement -

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় কয়েকমাস ধরে এলাকায় ছাগলগুলি উধাও হয়ে যাচ্ছে। মাঠে ছাগল দিলে সেই ছাগল খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। প্রায় ন’টি ছাগল চিতাবাঘে খেয়ে ফেলছে বলে এলাকার বাসিন্দাদের দাবি।

তাঁদের বক্তব্য, শুধু ছাগল নয় হাঁস, মুরগিও খেয়ে ফেলছে চিতাবাঘ। গরুকেও চিতা আক্রমণ করে বলে জানান এলাকার বাসিন্দারা। বুধবার সন্ধ্যায় চিতাবাঘের মতো দেখতে একটি প্রাণীকে ঘোরা ফেরা করতে দেখেন এলাকায় বাসিন্দারা। অন্ধকার থাকায় প্রাণীটি আদৌও চিতাবাঘ কি না, তা নিয়ে ধন্দে এলাকার বাসিন্দারা৷

এরপর এলাকায় বাসিন্দারা বন দফতরে অভিযোগ জানান৷ এদিন বন দফতরের পক্ষ থেকে ওই এলাকায় খাঁচা পাতা হয়। চিতাবাঘের টোপ হিসেবে খাবারও দেওয়া হয়। এদিকে এলাকায় বাসিন্দারা বিষয়টি নিয়ে আতঙ্কে রয়েছেন। এই ভাবে কত দিন কাটাবেন তাঁরা, সেই প্রশ্নই উঠছে।

এদিকে বন দফতরের কর্মী বিজয় ধর ঘটনাস্থলে গিয়ে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালায় চিতাবাঘের সন্ধানে। যদিও তেমন কিছুরই সন্ধান পাওয়া যায়নি। তিনি বলেন, ‘‘চিতাবাঘ বলছে এলাকায় বাসিন্দারা৷ তবে চিতাবাঘ না হতেও পারে৷ অন্য কোনও প্রাণীও হতে পারে৷ আমরা চিতাবাঘ ধরার খাঁচা পাতলাম।’’

Advertisement ---
-----