২১ নয়, ১৮ই হোক ছেলেদের বিয়ের বয়স সুপারিশ ল’কমিশনের

নয়াদিল্লি: ১৮ বছর বয়সকে প্রাপ্তবয়স্কতার মাপকাঠি ধরলে এবং ভোটাধিকারের অধিকার দেওয়া হলে, পুরুষদের জন্য ১৮ বছর বয়সকে আইনত বিয়ের বয়স হিসাবে কেন গ্রাহ্য করা হবে না? এমনই প্রশ্ন ল কমিশনের৷ এই যুক্তিতেই পুরুষদের জন্য বিয়ের বয়স ২১ থেকে কমিয়ে ১৮ করার সুপারিশ করল কমিশন৷ পুরুষ ও মহিলাদের মধ্যে বিয়ের বয়সের মধ্যে যে ফারাক আছে তা লোপ করা পক্ষপাতী কমিশন৷

আরও পড়ুন: পরিবারকে বাঁচাতে হিজবুল কমান্ডারের বাবাকে মুক্তি দিল পুলিশ

কমিশন জানিয়েছে, ইন্ডিয়ান মেজরিটি অ্যাক্ট, ১৮৭৫ অনুযায়ী পুরুষ ও মহিলা নির্বিশেষে সকলের আইনত বিয়ের বয়স ১৮ হওয়া উচিত৷ পুরুষ ও মহিলার বিয়ের বয়সের মধ্যে কোনও ভেদাভেদ থাকা উচিত নয়৷ কমিশন মনে করে, স্বামী ও স্ত্রীর বিয়ের ভিন্ন বয়সের ফারাকের মধ্যে কোনও যুক্তিপূর্ণ ব্যাখ্যা নেই৷ কেন শুধুমাত্র একজন মহিলা ১৮ বছর হলে তবেই আইনত বিয়ের যোগ্য হন আর কেনই বা পুরুষ হয় না তার কোনও জুতসই জবাব কারোর কাছে নেই৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: সস্তায় পেট্রল, ডিজেল বিদেশে বিক্রি করছে মোদী সরকার’

কমিশনের ব্যাখ্যা, প্রচলিত ধারণার বশবর্তী হয়েই পুরুষ ও মহিলার বিয়ের বয়সের মধ্যে তিন বছরের ফারাক রাখা হয়েছে৷ অনেকে মনে করেন স্ত্রীর বয়স স্বামীর চেয়ে কম হওয়া উচিত৷ তাকে মান্যতা দিতেই দুই লিঙ্গের মধ্যে বিয়ের বয়সের ভেদাভেদ৷ তাছাড়া ১৮ বছর বয়সে কেউ যদি সরকার নির্বাচিত করার অধিকার পান তাহলে জীবনসঙ্গী বাছার অধিকার থেকে কেন বঞ্চিত করা হবে? প্রশ্ন কমিশনের৷

Advertisement
---