স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মনোনয়নের দিন বাড়িয়েও তা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসছে বিরোধীরা৷ মঙ্গলবার কমিশনের দফতরে সেই ক্ষোভের ঢেউ দফায় দফায় আছড়ে পড়ল৷

বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় ঝাঁটা হাতে কমিশনে গিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন৷ নির্বাচন কমিশনারকে ব্যঙ্গ করে ফিডিং বোতল, ললিপপ নিয়ে গিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়ে এল কংগ্রেস৷

সোমবার মনোয়নের শেষ দিন ছিল৷ কিন্তু এদিন রাতেই কমিশন নির্দেশ দেয়, মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময়সীমা একদিন বাড়ানো হল। অর্থাৎ ১০ তারিখ দুপুর ৩টে পর্যন্ত মনোনয়ন জমা দেওয়া যাবে।

সূত্রের খবর, নয়া বিজ্ঞপ্তি জারি হতেই তৃণমূল সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় চিঠি দিয়ে মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময়সীমা বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানান৷ তৃণমূলের পক্ষ থেকে প্রশ্ন তোলা হয়, এই সিদ্ধান্তের বৈধতা নিয়ে। একই প্রশ্ন তুলে নির্বাচন কমিশনে চিঠি পাঠান রাজ্য সরকারের বিশেষ সচিবও। এরপরই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেন নির্বাচন কমিশনার৷

বিরোধীদের ক্ষোভ আছড়ে পড়তে পারে এই আশঙ্কা করে আগেই থেকেই মঙ্গলবার প্রস্তুত ছিল কমিশন৷ এদি সকাল থেকেই ওই চত্বরে ১৪৪ ধারা জারি ছিল৷ ব্যারিকেড দিয়ে পুরো এলাকা ঘিরে দেওয়া হয়েছিল৷ মোতায়েন ছিল বহু পুলিশ৷

প্রথমে হাওড়া জেলার বামফন্টের পক্ষ থেকে কমিশনে বিক্ষোভ দেখানো হয়৷ তাদের আটক করে পুলিশ৷ এরপর চারটের একটু আগেই বিজেপি ও কংগ্রেস একসঙ্গে কমিশনের দফতরে আসে৷ একদিক দিয়ে লকট চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে বিজেপির মহিলা মোর্চা ঝাঁটা হাতে আসে৷ অন্যদিকে যুব কংগ্রেসও কমিশনার অমরেন্দ্রকুমার সিংকে ব্যঙ্গ করে ললিপপ, ফিডিং বোতল নিয়ে আসে৷

বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশেই মনোনয়নের দিন বাড়িয়েও তা প্রত্যাহার করলেন নির্বাচন কমিশনার৷ ওনার পদত্যাগের দাবি জানাচ্ছি আমরা৷” কিছুক্ষনের মধ্যেই দুদলের বিক্ষোভকারীদের আটক করে লালবাজারে পাঠায় পুলিশ৷

----
--