লখনউ: ধর্মীয় পরিচয় করে প্রথমে প্রেম। তারপরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে এক হিন্দু মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল এক মুসলিম যুবকের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন- লাভ জিহাদের শিকার তরুণীকে ধর্মান্তরিত করে ধর্ষণের অভিযোগ

Advertisement

ঘটনাটি দেশের সব থেকে বড় রাজ্য উত্তর প্রদেশের বরেলি এলাকার। জোর করে ওই মহিলাকে ধর্মান্তর করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে বাধ্য করা হয়েছিল বলে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে পুলিশের কাছে।

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অভিযোগকারী মহিলা এবং অভিযুক্ত ব্যক্তির আলাপ হয় একটি জিম থেকে। সেখান থেকেই তাদের প্রেম হয় এবং তারা পরে আরও ঘনিষ্ঠ হয়। দু’জনে একই জায়গায় কাজ করতো বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

আরও পড়ুন- লাভ জিহাদ: বিজেপি নেতার বাড়িতে মেয়েকে বন্দি মায়ের

অভিযগকারী মহিলার বক্তব্য, প্রথমে নিজেকে গোলু বলে পরিচয় দিয়ে আলাপ জমিয়েছিল অভিযুক্ত। নিজেকে হিন্দু বলেও দাবি করেছিল সে। এরপর বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দীর্ঘ দুই বছর ধরে লাগাতার ওই মহিলাকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। এরপরে মহিলার গর্ভে এক কন্যা সন্তানের জন্ম হয়।

আরও পড়ুন- তিন তালাক থেকে লাভ জিহাদে কঠোর আইনের দাবি প্রগতিশীল মুসলিম সমাজের

বিয়ের জন্য চাপ দিলে পালটা শর্ত চাপায় অভিযুক্ত। সেই সময় নিজের আসল ধর্ম পরিচয় জানায় অভিযুক্ত। বিয়ের জন্য অভিযোগকারী মহিলাকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে হবে এবং গরুর মাংস খাওয়া শুরু করতে হবে। এই শর্ত মানলেই ওই মহিলাকে বিয়ে করবে বলে জানায় অভিযুক্ত ব্যক্তি। আরও অভিযোগ, ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করা হয়েছিল বলে দাবি করেছেন অভিযোগকারী।

সমগ্র ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও এখনও পর্যন্ত অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়নি।

----
--