নয়াদিল্লি: সামনে উৎসবের মরশুম৷ তার আগেই দিল্লিতে জারি জঙ্গি হামলার সতর্কতা৷ আকাশপথে হতে পারে সেই হামলা৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে এমনই রিপোর্ট দিয়েছে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা৷ এরপরই নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও আটোসাঁটো করা হয়েছে৷ যাতে নিরাপত্তার ফাঁক গলে মাছিও না প্রবেশ করতে পারে৷

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, হামলার জন্য জঙ্গিরা টার্গেট করেছে ভিভিআইপি এলাকা লুটইয়েন জোনকে৷ যে এলাকায় থাকেন মন্ত্রী থেকে শুরু করে আমলা, সেনা কর্তা ও বিচারপতিরা৷ এই লুটইয়েন এলাকাতে রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর অফিস, রাষ্ট্রপতি ভবন ইত্যাদি৷ এমন এক এলাকায় আকাশপথে হামলার ছক কষেছে জঙ্গিরা৷ গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরই কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের আধিকারিকদের৷ এই রিপোর্টকে তাঁরা মোটেই হালকাভাবে নিতে নারাজ৷ রিপোর্ট পাওয়ার পরই লুটইয়েন জোরে নিরাপত্তা আরও জোরদার করা হয়েছে৷

Advertisement

রিপোর্ট অনুযায়ী, আকাশপথে বিমান থেকে বোমা বা গুলি বর্ষণ করে হামলা হবে এমনটা নাও হতে পারে৷ প্যারাগ্লাইড, প্যারাসেইল, ড্রোন, অ্যারো মডেল বা হট এয়ার বেলুনের মাধ্যমে হামলা করতে পারে জঙ্গিরা৷ লস্কর-ই-তইবা বা অন্যান্য জঙ্গি সংগঠন রাজধানীর অন্যতম পশ এলাকায় হামলার ছক কষেছে৷

প্রসঙ্গত জুলাই মাসে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ভিআইপিদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এজেন্সিগুলির কাছে জানতে চায় যদি কখনও এই লুটইয়েন এলাকায় আকাশপথে বা রাসায়নিক হামলা হয় তাহলে সেই পরিস্থিতির মোকাবিলা তারা কীভাবে করবে৷ নিরাপত্তা এজেন্সিগুলিকে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয়৷

এ দিকে রিপোর্ট পাওয়ার পরই দিল্লি পুলিশ এই ভিআইপি এলাকার নিরাপত্তা আরও জোরদার করেছে৷ দিল্লি পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এই চত্বরের আকাশপথে উড়ন্ত বস্তু নিষিদ্ধ করা হয়েছে৷ তাছাড়া এই অপারেশনের জন্য হামলাকারীদের দিল্লিতে আসতেই হবে৷ দিল্লিতে ঘর ভাড়া নিয়ে থাকবে৷ তাই সব বাড়ির মালিকদের কড়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যাতে অপরিচিত ব্যক্তিকে ঘর ভাড়া না দেওয়া হয়৷ অথবা ভাড়া দিলেও ভাড়াটিয়ার যাবতীয় তথ্য যেন স্থানীয় থানায় জমা দেন৷

----
--