চেন্নাই : তামিলনাড়ুর তুতিকোরিনে স্টারলাইট বিক্ষোভের সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হন ১৩ জন৷ সেই ঘটনায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিল মাদ্রাজ হাইকোর্ট৷ চলতি বছরের ২২শে মে বেদান্ত স্টারলাইট কপার ইউনিটের বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভে অশান্ত হয়ে ওঠে গোটা এলাকা৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি চালাতে হয় পুলিশকে৷

মঙ্গলবার সেই ঘটনার প্রেক্ষিতেই সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়৷ মঙ্গলবারের এই রায়ের প্রেক্ষিতে তামিলনাড়ুর মন্ত্রী ডি জয়কুমার জানিয়েছেন হাইকোর্টের নির্দেশ অবশ্যই পালন করবে রাজ্য সরকার৷ তবে বিশেষজ্ঞদের দাবি এই নির্দেশের ফলে বেশ কিছুটা অস্বস্তিতে পড়ে গেল তামিলনাড়ু সরকার৷ মাদ্রাজ হাইকোর্টের বিচারপতি সি টি সেলভাম ও এ এম বশিরের ডিভিশন বেঞ্চ এই রায় দেয়৷
সিবিআইকে চার মাসের মধ্যে এই ঘটনার তদন্ত করে রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ এরআগে, পয়লা আগস্ট মাদুরাই বেঞ্চও একই নির্দেশ দিয়েছিল৷ সেই রায়কেই বহাল রাখল মাদ্রাজ হাইকোর্ট৷

Advertisement

এর আগে, তুতিকোরিনে স্টারলাইট বিরোধী আন্দোলনে পুলিশের গুলি চালনার পিছনে দায়ী করা হয়েছিল বিক্ষোভকারীদের৷ স্টারলাইট বিরোধী আন্দোলন ক্রমশ হিংসাত্মক হয়ে উঠছিল৷ আন্দোলনে রাশ টানতে তখন স্থানীয় প্রশাসন পুলিশকে গুলি চালানোর নির্দেশ দেয়৷ প্রশাসন থেকে সবুজ সঙ্কেত পেয়ে আন্দোলনকারীদের উপর গুলি চালায় পুলিশ বলে জানানো হয়৷

স্টারলাইট কারখানা বন্ধের দাবিতে ২২ মে রাস্তায় নামে বিক্ষোভকারীরা৷ সেই আন্দোলনকে কেন্দ্র করে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে তুতিকোরিন৷ পুলিশের গুলিতে মারা যান ১১জন বিক্ষোভকারী৷ সেই ঘটনায় দেশ জুড়ে নিন্দার ঝড় ওঠে৷ সেদিনের পুলিশের ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে বিভিন্ন মহলে৷ কিন্তু ওই ডেপুটি তহশিলদারের বয়ান অনুযায়ী, পুলিশ গুলি চালাতে বাধ্য হয়েছিল৷ কারণ আন্দোলন ক্রমশ হিংসাত্মক হয়ে উঠছিল৷

জানানো হয় ঘটনাপ্রবাহ যে দিকে মোড় নিচ্ছিল তাতে গুলি ছোঁড়া ছাড়া কোনও উপায় ছিল না৷ এফআইআরে বলা হয়, বিক্ষোভকারীরা প্ল্যান্টে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করছিল৷ এতে অনেক মানুষের প্রাণহানির আশঙ্কা দেখা দিয়েছিল৷ তাই বাধ্য হয়ে বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়া হয়৷

এফআইআরে বলা হয়েছিল, গুলি চালানোর আগে তারা মাইকে বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করে দেয়৷ কিন্তু বিক্ষোভকারীরা তাতে বিশেষ গুরুত্ব দেয়নি৷ তবে আন্দোলনকারীরা জানান, ওই দিন পুলিশ মাইকে কিছুই ঘোষণা করেনি৷ এমনকী তারা রাবার বুলেট পর্যন্ত ব্যবহার করেনি৷ সাধারণত কোনও আন্দোলন দমনে পুলিশ রাবার বুলেট, টিয়ার গ্যাস ব্যবহার করে থাকে৷ সেই দিন এগুলি না ব্যবহার করার অভিযোগ ওঠে পুলিশের বিরুদ্ধে৷

----
--