ত্বহা সিদ্দিকির মধ্যস্থতায় উঠল মাদ্রাসা শিক্ষকদের অনশন

কলকাতা: ৪৯৫টি এম এস কে মাদ্রাসাকে মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের অধীনে আনার দাবিতে গত ১লা অক্টোবর থেকে লাগাতার অনশনে বসেছিলেন মাদ্রাসা শিক্ষক-শিক্ষিকার একাংশ। কালীপুজো আগের দিন, সোমবার ত্বহা সিদ্দিকির মধ্যস্থতায় উঠে গেল সেই অনশন আন্দোলন। এর আগে মাদ্রাসা শিক্ষা কেন্দ্রের (এমএসকে) শিক্ষকদের অনশনকে অগ্রাহ্য করে রাজ্য সরকার ঠিক কাজ করছে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন ফুরফুরা শরিফের পীর ত্বহা সিদ্দিকী।  সেবার অনশনকারীদের অনশন চালিয়ে যাওয়ার উৎসাহ দিয়ে ত্বহা বলেছিলেন, ‘‘সোজা আঙুলে ঘি না উঠলে আঙুল বাঁকাতে হয়! ভয় পাবেন না!’’

মুসলিম ইনস্টিটিউটের সামনে মাদ্রাসা শিক্ষক-শিক্ষিকাদের এই অনশন আন্দোলন ইতিমধ্যেই মাস খানেক পেরিয়ে গিয়েছে, অথচ রাজ্য সরকার উদাসীন, এই অভিযোগ পেয়ে আজ আন্দোলনকারীদের সঙ্গে বৈঠকে বসার আশ্বাস দেন পুর ও নগরোন্নয়মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। আশ্বাস পেয়ে উঠে যায় আন্দোলন। গত কয়েকদিন ধরেই মাদ্রাসার অনশনকে কেন্দ্র করে রাজ্য সরকারের উপরে সংখ্যালঘু-প্রশ্নে চাপ বাড়াচ্ছিল বিরোধী বাম ও কংগ্রেস সিবির। ত্বহার উপস্থিতি সংখ্যালঘু হাতিয়ারে শান দিতে বিরোধীদের আরও সাহায্য করে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীকে চিঠি দিয়ে তাঁদের দাবিপূরণে মধ্যস্থতা করার আবেদন জানিয়েছেন অনশনকারীরা।

Advertisement
---