মেট্রোর কাজের জন্যেই কি ভেঙে পড়ল মাঝেরহাট ব্রিজ?

কলকাতা:  ফিরে এসেছে পোস্তা স্মৃতি! তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়েছে মাঝেরহাট ব্রিজের একাংশ। যদিও দীর্ঘদিন ধরেই মাঝেরহাট ব্রিজ সংস্কারের দাবি আসছিলেন স্থানীয় মানুষজন। কিন্তু অভিযোগ, সেই বিষয়ে কোনও কর্ণপাত করেননি প্রশাসন। আর যার ফল আজকের ঘটনা! কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল মাঝেরহাট ব্রিজ। ভেঙে পড়া ধ্বংসস্তুপের মধ্যে অনেকের আটকে থাকার আশঙ্কা। এরই মধ্যে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চলছে উদ্ধার কাজ। কিন্তু আশঙ্কা এখনও পর্যন্ত কাটেনি।

কারণ ব্রিজের বাকি অংশ এখনও বিপজ্জনকভাবে ঝুলে রয়েছে। যে কোনও মুহূর্তে ভেঙে পড়তে পারে সেটিও। কিন্তু এসবের মধ্যেও যে প্রশ্নটা বারবার উঠে আসছে তা হল, এভাবে ব্রিজ ভাঙার দায় কার? রেল না পি-ডাবলু-ডির? নবান্ন সূত্র খবর পূর্ত দফতরেও এই বিষয়ে শুরু হয়েছে জোর গুঞ্জন। যদিও এই বিষয় স্পিকটি নট সবপক্ষই।

- Advertisement -

 

যদিও পি-ডাবলু-ডির দাবি তাদের নাকি ব্রিজ দেখভালের কোনও দায়িত্ব না। সম্পূর্ণটাই রেলের। যদিও সেই দাবি সম্পূর্ণ খারিজ করে দিয়েছে রেলও। যদিও নবান্নের এক আধিকারিকের মতে, মাঝেরহাট ব্রিজ তৈরি হয় আজ থেকে ৪০ বছর আগে। আর এই ব্রিজের পাশ দিয়েই চলছিল মেট্রোর কাজ। আর এই মেট্রোর কাজের জন্যেই মাটি খোঁড়ার কাজ চালাচ্ছিলেন মেট্রোর আধিকারিকরা।

শুধু তাই নয়, গত কয়েকদিন ধরেই মাটির নীচে মেশিন দিয়ে খননের কাজ চলছিল। মনে করা হচ্ছে তাতেই মাটি আলগা হয়ে থাকতে পারে। আর মাটি আলগা হয়ে যাওয়ার ফলে মাঝেরহাট ব্রিজ তার ক্ষমতা আর ধরে রাখতে পারেনি। আর সেজন্যেই এতবড় বিপর্যয় বলে মনে করছেন সরকারি আধিকারিকরা। যদিও এমন কোনও সম্ভাবনা নেই বলে পালটা সাফ জানিয়ে দিয়েছে মেট্রো। তাঁদের তরফে জানানো হয়েছে যে মাটির নীচে কোনও ভাইব্রেটার চলছিল না।

যদিও বিষয়টি এখনও পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না বলেই জানাচ্ছেন আধিকারিকরা। তাঁদের মতে, তদন্তের প্রয়োজন। আর এরপরেই সঠিকভাবে বলা যাবে

Advertisement
----
-----