হাত থেকে অস্ত্র ‘কেড়ে’ রামনবমীতে বিজেপিকে ‘ছাড়’ মমতার

দেবযানী সরকার, কলকাতা: অস্ত্র ছাড়াই বিজেপিকে রামনবমীর মিছিল করতে হবে৷ এমনকি সেই সময় মাধ্যমিক পরীক্ষা থাকায়, কোনওভাবে মাইক বাজানো যাবে না৷ বিজেপিকে রামনবমী পালনের ‘ছাড়পত্র’ দিলেও, এই দুই ‘শর্ত’ রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর নির্দেশে গত বছর বাংলায় ধুমধাম করে রামনবমী পালন করেছিল গেরুয়া শিবির৷ জেলায় জেলায় গেরুয়া পতাকা হাতে বাইকে চেপে ‘দাপিয়ে’ বেরিয়েছিল বিজেপি৷

আরও পড়ুন: দিলীপকে সরিয়ে বঙ্গ-ব্রিগেডের দায়িত্বে আসছেন মোদীর নয়া সেনাপতি

- Advertisement -

তলোয়ার-গদা-ত্রিশূল নিয়েও বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের মিছিল করতে দেখা গিয়েছিল৷ এমনকি গেরুয়া শিবিরের ওই মিছিলে খুদেদেরও অস্ত্র হাতে হাঁটতে দেখা গিয়েছিল৷ যা নিয়ে তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়েছিল রাজ্য রাজনীতিতে৷

শুক্রবার দলের বর্ধিত কোর কমিটির বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “বিজেপি রামনবমীর মিছিল করতেই পারে৷ এটা যার যার ধর্মীয় ব্যাপার৷ কিন্তু অস্ত্র নিয়ে মিছিল করা যাবে না৷ আর সেই সময় মাধ্যমিক পরীক্ষা চলবে৷ তাই মাইক না বাজিয়ে মিছিল করতে হবে৷ প্রশাসনের থেকে তার আগে অনুমতি চেয়ে নিতে হবে৷”

আরও পড়ুন: বিজেপির বঙ্গ নেতৃত্বকে দিল্লিতে জরুরি তলব ঘিরে জল্পনা

এ প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে বিজেপির নেতা রাহুল সিনহা বলেন, ‘‘বিজেপি কোনও দিনই অস্ত্র হাতে মিছিল করেনি৷ হিন্দু সংগঠনের কেউ কেউ অস্ত্র নিয়ে মিছিল করেছিলেন৷ সেখানে হয়তো বিজেপির নেতাকে দেখা গিয়েছিল৷ ’’ একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘তার থেকেও বড় কথা, মুখ্যমন্ত্রী আগে এটা বলুন যে, মহরমে যদি মুসলিমরা অস্ত্র হাতে মিছিল করতে পারেন, তা হলে রামনবমীতে করতে পারবে না কেন? ধর্মের ক্ষেত্রে আলাদা নিয়ম হবে কেন?’’

আরও পড়ুন: বিজেপি ও বিচ্ছিন্নতাবাদী জোট ‘সুশাসন’ দিক ত্রিপুরায়

কয়েক দিন আগে রামনবমীর মিছিলের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে সাংবাদিকদের কাছে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বক্তব্য এমনই ছিল, ‘‘জেলাগুলোতে তো বটেই কলকাতায় তৃণমূলের অনেক পার্টি অফিসে খুঁজলেই প্রচুর আগ্নেয়াস্ত্র পাওয়া যাবে৷ সেখানে পুলিশের কোনও মাথা ব্যাথা নেই৷ কিন্তু কোনও ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যখন সংঘবদ্ধভাবে অস্ত্রহাতে কেউ বের হবেন, তখনই যত আপত্তি৷ ’’

আরও পড়ুন: হুমকির সুরে দিলীপের বার্তা, পদ্ম থাকলে লেনিন থাকবে

Advertisement
-----