রাজ্যগুলির উপর নজরদারি চালাচ্ছে কেন্দ্র: মমতা

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: এই অভিযোগ নতুন নয়৷ রাজ্যগুলির উপর নজরদারি চালাচ্ছে কেন্দ্র – মোদী জমানায় এই অভিযোগ কয়েক বছর ধরেই করে এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বৃহস্পতিবার দেশের অন্যান্য রাজ্যগুলিকেও প্রশাসনিক সভার মঞ্চ থেকে সাবধান করেছেন মমতা৷

নদীয়ার কৃষ্ণনগরে মমতা এদিন জানান, ‘‘সব রাজ্যকে বলছি৷ ভালো করে নজর রাখুন৷ পুরোপুরি ক্ষমতার অপব্যবহার করছে কেন্দ্র৷ রাজ্যগুলির উপর নজর রাখা হচ্ছে৷’’ মমতা জানান, দেশের সাংগঠনিক পরিকাঠামো, রাজ্য-কেন্দ্র সম্পর্ককে সম্পূর্ণ ভেঙে দিয়েছে মোদী সরকার৷ তিনি বলেন, ‘‘আমার প্রশ্ন প্রতিটি রাজ্যে নির্বাচিত সরকার রয়েছে৷ তা স্বত্ত্বেও কেন ফেডারেল স্ট্রাকচারকে ভেঙে দেওয়া হচ্ছে? নরেন্দ্র মোদী কী রাজ্যে রাজ্যে কোনও সমান্তরাল সরকার চালানোর চেষ্টা করছেন?’’

কেন্দ্রের স্বাস্থ্যপ্রকল্প ‘আয়ুষ্মান ভারত’ থেকেও হাত তুলে নিয়েছেন মমতা৷ যে প্রকল্পের কার্ডে নরেন্দ্র মোদীর ছবি থাকে এবং প্রকল্পের প্রতীক হিসেবে এক ‘অন্যধরণের’ প্রস্ফুটিত পদ্মফুল দেখা যায় – সেই প্রকল্পকে তিনি রাজ্যে গ্রহণ করবেন না, তা জানিয়ে দিয়েছেন মমতা৷

মমতার বক্তব্য, ‘‘সরকারি প্রকল্পের নামে বিজেপির প্রচার চালাচ্ছে নরেন্দ্র মোদী৷ পোস্ট অফিস থেকে কার্ড পৌছে যাচ্ছে বাড়ি বাড়ি৷ মমতার বক্তব্য, ওই প্রকল্পে এক টাকাও পাওয়া যাবে না৷ শুধু মোদীর প্রচার হবে৷’’ নদীয়ার সভায় মমতা বলেছেন, রাজ্য থেকে আয়কর, কাস্টমস্ ডিউটি তোলে কেন্দ্র৷ কিন্তু রাজ্য কত টাকা পায়৷ রাজ্যের আরও বেশি টাকা পাওয়া প্রয়োজন৷

ইতিমধ্যেই বিজেপি এবং কংগ্রেসের সঙ্গে সমদূরত্বের কথা জানিয়ে দিয়েছে তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কালভাকুন্তলা চন্দ্রশেখর রাও৷ ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পটনায়কও জানিয়েছেন তিনি মহাজোট বা ফেডারেল ফ্রন্টে থাকবেন না৷ ১৯ জানুয়ারি কলকাতায় ফেডারেল ফ্রন্টের সভায় বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগতে চলেছেন মমতা৷ দেশের মোদী বিরোধী নেতারা এই সভায় যোগ দেবেন – দাবি করেছে তৃণমূল৷ ফেডারেল ফ্রন্টের ওই মঞ্চে মমতার হাত ঘরতে কে আসবেন – দেখতে অপেক্ষা করছে সারা দেশ৷

---- -----