‘অমিত শাহের নিজের বাবার সার্টিফিকেট আছে তো?’

ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ‘‘অমিত শাহের নিজের বাবার সার্টিফিকেট আছে তো?’’ অসমে জাতীয় নাগরিক পঞ্জিকরণ (এনআরসি) ইস্যুতে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে একথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ অসমে নিজেকে ভারতীয় প্রমাণ করতে প্রতি বাসিন্দাকে দেখাতে হচ্ছে জন্ম ও মৃত্যুর শংসাপত্র৷ শুধু তাই নয়, কোনও কোনও ক্ষেত্রে পিতামহ, মতামহেরও জন্মের শংসাপত্র চাওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ জানিয়ে মমতার বক্তব্য, ‘‘আরে আমার কাছেও তো আমার বাবার ‘বার্থ সার্টিফিকেট’ (জন্মের শংসাপত্র) নেই৷ ৪০ বছর আগে মারা গিয়েছেন৷ আমি ইউ কে (ইউনাইটেড কিংডম)-এ যাওয়ার সময় জিজ্ঞাসা করেছিল৷ আরে, আমাদের মধ্যে কতজন বাবার ‘ডেট অব বার্থ’ (জন্ম তারিখ) বা মায়ের ‘ডেট অব বার্থ’ বলতে পারবো?’’ পরে তিনি আরও বলেছেন, ‘‘বিজেপি পার্টির সবার ‘পিতাজি-মাতাজি’র সার্টিফিকেট আছে তো? তিন-চার জেনারেশনের নাম, সার্টিফিকেট, জন্ম তারিখ মনে রাখা সম্ভব৷’’

শুধু বিজেপির সর্বভারতীয় অমিত শাহ-ই নয়, কত জনের বাবা-মায়ের সার্টিফিকেট আছে তা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে মমতা টেনে আনেন নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু (যদিও পরে বলেছেন নেতাজির থাকলেও থাকতে পারে) এবং মহত্মা গান্ধীকে৷ মমতার কথায়, ‘‘স্বামী বিবেকানন্দের বাবা-মায়ের জন্ম কবে …৷’’

মমতার বক্তব্য, স্বাধীনতার ৭২ বছর পর কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের এনআরসি-এর কথা মনে পড়ল৷ এই জন্যই সবাই দিনে দিনে গো-রক্ষক হয়ে যাচ্ছে৷ কেউ কী জি়জ্ঞাসা করেছে, সারা বিশ্বে আরএসএস বিজেপির এত শাখা কী করে জন্ম নিল?

- Advertisement -

আজ যদি ভারতীয় জনতা পার্টির নেতৃত্বে আটল বিহারি বাজপেয়ী বা লালকৃষ্ণ আডবানির মতো নেতারা থাকতেন, তবে এনআরসি নিয়ে মামামাতি হতো না, জানিয়েছেন মমতা৷ বিজেপি বাংলা বিরোধী দল৷ অসমে ২৫ লক্ষ হিন্দু, ১৩ লক্ষ মুসলমান, ২-৩ লক্ষ বিহারি, নেপালি৷ ১২০০ মানুষকে অসমের বিজেপি সরকার Detention Camp – এ পাঠিয়ে দিয়েছে৷ তবে ইউনাইটেড বেঙ্গলি ফোরাম মমতা কে বলে গিয়েছে, অসমে এখনও ২ কোটি বাঙালি রয়েছে৷ মমতা বলেন, ‘‘শুধু বাংলা নয়৷ আমি সারা দেশজুড়েই যেকোনও ভাষার জন্য লড়তে পারি আমি৷ যেখানে ভাষাগত কারণে মানুষকে আলাদা করার চেষ্টা হবে, আমি সেখানেই লড়ব৷’’

মমতার কথায়, ‘‘বিজেপি পার্টিটার জন্যই এনআরসি চালু করা উচিত৷ ওরা ভোটের দিকে তাকিয়ে রাজনীতি করছে৷ ভোট এলেই ভারত-পাকিস্তান৷ ক্রিকেট ছেড়ে এখন ছায়াযুদ্ধ চলছে৷ আমার কথা, কেন তৃণমূল এমপি’দের অসমে আটকানো হল৷ এরকম কী করা যায়৷ আমার এখানে হলে আমি আটকাতাম না৷ মহারাষ্ট্র, উত্তর প্রদেশে অনেক বাইরের লোক থাকে৷ বাংলায় অনেক মারোয়ারি থাকেন৷ আমি কী তাদের বার করে দিতে পারি৷ গায়ের জোরে মানুষকে শরণার্থী বলা হচ্ছে৷ ১৯৭১ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত যারা ভারতে অসেছেন, তারা ভারতীয়৷’’

অমিত শাহকে মমতার প্রশ্ন, ‘‘অমিত শাহ (যদিও) ইলিশ মাছ খান না৷ বাঙালিরা ইলিশ মাছ খান৷ ইলিশ মাস কী অনুপ্রবেশকারী? আম, সন্দেশ, মিষ্টি কী অনুপ্রবেশকারী?’’

Advertisement
---