দেশিকোত্তম দেওয়া হচ্ছে না শুনে মর্মাহত মমতা

স্টাফ রিপোর্টার, বোলপুর: সাতজন দেশিকোত্তম পাচ্ছেন না৷ মর্মাহত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বৃহস্পতিবারই বোলপুরে পৌঁছে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মুখ্যমন্ত্রী৷ সেখানেই এ কথা জানান তিনি৷

এর আগেও রাজীব গান্ধী প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন বিশ্বভারতীর সমাবর্তনে যোগ দিয়েছিলেন মমতা৷ এবারও দু’দেশের প্রধানমন্ত্রী আসছেন সমাবর্তনে যোগ দিতে৷ এবারের সমাবর্তন নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও বেশ উৎসাহী, নিজেই জানালেন সে কথা৷

আরও পড়ুন: ভোটারদের কাছে দল পৌঁছতে পারেনি, মানলেন মমতার মন্ত্রী

- Advertisement DFP -

তবে দেশিকোত্তম নিয়ে ‘অখুশি’ মমতা বলেন, ‘‘দেশিকোত্তম যাঁদের দেওয়ার কথা ছিল তাঁরা পাচ্ছেন না৷ আমি দুঃখিত৷ তালিকায় অমিতাভ বচ্চন যেমন ছিলেন৷ তেমন আমাদের দ্বিজেনদাও ছিলেন৷ যোগেন চৌধুরির নামও ছিল৷ আমি মনে করি এঁরা প্রত্যেকে রাজনীতির ঊর্ধ্বে৷ সাতজন দেশিকোত্তম পেলেন না৷ কেন দেওয়া হল না সেই বিতর্কে আমি যাচ্ছি না৷ তবে এটা দেওয়া উচিৎ ছিল৷ এটা দিতে পারলে অনুষ্ঠানটার গুরুত্ব আরও বাড়ত৷’’

মমতা বলেন, বিশ্বভারতী আমাদের অত্যন্ত গর্বের জায়গা৷ রবীন্দ্রনাথের জায়গা৷ আর এখানে বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধন হচ্ছে, খুশি তিনি৷ বলেন, ‘‘এটা রাজনীতির জায়গা নয়, সমাবর্তনের জায়গা৷ এপার বাংলা-ওপার বাংলার সম্পর্ক চিরকালীন, সর্বজনীন৷ এখানে কোনও সীমান্ত নেই৷ কোনও রাজনীতি নেই৷ আমাদের সভ্যতা, আন্তরিকতা, সংস্কৃতির আদানপ্রদানই মূল৷’’

আরও পড়ুন: পঞ্চায়েতে জয়ী প্রার্থীকে দুষ্কৃতীদের আক্রমণ ঘিরে অবরোধ

তাই এবারের সাক্ষাতে তিস্তা, ইলিশ নিয়ে কোনও আলোচনা নয়, নিছক সৌজন্য সাক্ষাতেই খুশি থাকছেন মমতা৷ তবে শনিবার শেখ হাসিনার সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎ করছেন তিনি৷ কী কথা সেখানে হবে তা এখনই সামনে আনতে চাইছেন না তিনি৷

Advertisement
----
-----