বেলুড় মঠ দখল হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন মমতা

ছবি সৌজন্যে : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজ

সুমন আদক, হাওড়া: উপলক্ষ ছিল স্বামীজির শিকাগো বক্তৃতার ১২৫ বছর পূর্তি উৎসব৷ সেই জন্যই বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল বেলুড় মঠে৷ সেই অনুষ্ঠানের মঞ্চ থেকেই বেলুড় মঠ দখল হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

ছবি সৌজন্যে : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজ

তিনি বলেন, ‘‘দক্ষিণে কন্যাকুমারীকে দখল করেছে। বেলুড় মঠ দখল করতে চাইছে। আমরা জোর করে দখল করতে দেব না। গোঁড়ামি, সাম্প্রদায়িকতা ত্যাগ করার কথা বলব। সম্প্রীতিই মানুষকে এক জায়গায় আনতে পারে।’’

আরও পড়ুন: স্বপ্নের পাঠ পড়াচ্ছেন প্রতিবন্ধী সঞ্জয়

- Advertisement -

স্বামীজির শিকাগো বক্তৃতার ১২৫ তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে মঙ্গলবার সারা রাজ্যে সম্প্রীতি দিবস হিসেবে পালন করা হচ্ছে। এদিন থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাজ্যে পালিত হবে সম্প্রীতি সপ্তাহ। এদিন মূল অনুষ্ঠান হয় বেলুড় মঠে। অনুষ্ঠানের পৌরোহিত্য করেন রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের প্রেসিডেন্ট স্বামী স্মরণানন্দ মহারাজ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ওই অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করতে গিয়ে নাম না করে বিজেপিকে আক্রমণ করেন৷ নাম না করে বিজেপির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িকতার অভিযোগ তুলে সরব হন৷ একই সঙ্গে টেনে আনেন শিকাগোর অনুষ্ঠান বাতিল হয়ে যাওয়ার প্রসঙ্গও৷

আরও পড়ুন: জঙ্গি নয় খরাতেই বিধ্বস্ত আফগানিস্তান: রিপোর্ট

তিনি জানান, শিকাগোতে একই জায়গায় তাঁর উপস্থিত থাকা ও ভাষণ দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আচমকাই চক্রান্ত করে কারও সেই অনুষ্ঠান বাতিল করে দেয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগ, ‘‘চক্রান্তকারীরা চায়নি বাংলা থেকে আমরা কেউ শিকাগোয় যাই। তবে এক্ষেত্রে বেলুড় মঠের কোনও দোষ নেই। আমাদের যাওয়া আটকাতে একটা অশুভ চক্রান্ত কাজ করেছে।’’

ছবি সৌজন্যে : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজ

ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে না পেরে তিনি যে দুঃখ পেয়েছেন, সেই কথাও উল্লেখ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি বলেছেন, ‘‘এতে আমি দুঃখ পেয়েছি। ব্যথা পেয়েছি।’’ তবে মমতার কথায়, ‘‘এইভাবে আমাদের আটকে রাখতে পারবে না। নাই বা শিকাগোয় যেতে পারলাম। বেলুড় মঠে তো অনুষ্ঠান হল।’’

আরও পড়ুন: ঋণ দেওয়াতে সতর্ক না হলে অনুৎপাদক সম্পদ বাড়বে: রাজন

স্বামীজীর হিন্দুধর্ম প্রচার ও ধর্মীয় সহিষ্ণুতাকে তুলে ধরেন তিনি। মমতা বলেন, ‘‘ভারতের সনাতন ধর্ম সকল ধর্মকে সত্য বলে বিশ্বাস করে। আমরা হিন্দু ধর্মের ব্যাখ্যা নেব স্বামীজীর কাছে। আমরা হিন্দু ধর্মের নতুন ব্যাখ্যা কারও কাছে নেব না।’’

ছবি সৌজন্যে : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজ

এর মাধ্যমে মমতা আসলে বিজেপিকেই বিঁধেছেন বলে রাজনৈতিক মহলের মত৷ কারণ, এখানে না থেমে মমতা আরও বলেছেন, ‘‘হিন্দু ধর্ম বিশ্বজনীন। স্বামীজীর ধর্ম আমাদের মাটিতে তৈরি হওয়া ধর্ম। আজ যারা বাইরে থেকে ইমপোর্ট করে হিন্দু ধর্ম বলতে চাইছে, মানুষকে জ্ঞান দিতে চাইছে কে কী খাবে, কে কী পরবে তা নিয়ে, তাদের আমরা মানি না। বাংলা কারও জ্ঞান শোনে না। বাংলা পৃথিবীকে পথ দেখাতে পারে।’’

আরও পড়ুন: ফাঁস হয়ে গেল প্যান নম্বর সহ প্রতিরক্ষার বেশ কিছু সেনসিটিভ তথ্য

এর পরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেলুড় মঠ দখল হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেন৷ বলেন, ‘‘এরা সব জায়গায় রাজনীতি করছে। দক্ষিণে কন্যাকুমারীকে দখল করেছে। বেলুড় মঠ দখল করতে চাইছে।’’

এদিন বেলুড় মঠে বিবেকানন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বামী বিবেকানন্দের নামে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে একটি ‘চেয়ার’ প্রদান করার কথা ঘোষণা করেন মমতা। এর জন্য বেলুড় মঠ কতৃপক্ষকে সরকারের তরফে এদিন মুখ্যমন্ত্রী দেড় কোটি টাকা অনুদানের ঘোষণা করেন। পাশাপাশি রাজারহাটে বেলুড়মঠের পক্ষ থেকে গড়ে উঠতে থাকা বিবেকতীর্থে ‘সেন্টার অফ এক্সসেলেন্স’ তৈরির জন্য রাজ্য সরকারের তরফে রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের অধ্যক্ষ স্বামী স্মরণানন্দ মহারাজের হাতে ১০ কোটি টাকার চেক তুলে দেন মমতা।

আরও পড়ুন: শত্রু বলি দেখেই শ্বশুরবাড়ি ফেরেন নীল দুর্গা

এদিন বেলুড় মঠের অনুষ্ঠানে তিনি ছাড়াও সম্মানীয় অতিথি হিসেবে বক্তৃতা দেন কলকাতার ব্রিটিশ ডেপুটি হাই-কমিশনার ব্রুস বাকনেল। সারা দেশের পাশাপাশি বিশ্বের আরও ২৬টি দেশে এই উৎসব পালন করা হচ্ছে। এদিন বেলুড় মঠের অনুষ্ঠানে বৈদিক মন্ত্রপাঠে অংশ নেন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ব্রহ্মচারীগণ।

ছবি সৌজন্যে : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজ

এরপর স্বাগত ভাষণ দেন রামকৃষ্ণ মঠ ও রামকৃষ্ণ মিশনের সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবীরানন্দ মহারাজ। এরপর বর্ষব্যাপী অনুষ্ঠানের সূচনা করেন প্রেসিডেন্ট মহারাজ। বিবেকচেতনায় উদ্ভাসিত জগৎ শীর্ষক একটি বই প্রকাশ করেন তিনি। এদিন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী নিবেদিতা ভবনের দ্বারোদঘাটন করেন। অনুষ্ঠানে সমাপ্তি সঙ্গীত পরিবেশন করেন স্বামী শিবাধিসানন্দ মহারাজ।

আরও পড়ুন: যৌথ সেনামহড়ায় নামতে চলেছে ভারত-আমেরিকা

Advertisement
---