কেরলের ত্রাণ তহবিলে বাংলার ১০ কোটি, ঘোষণা মমতার

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: কেরলের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে টুইট করে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই বড় ঘোষণা করে সমালোচনাকারীদের মুখ বন্ধ করলেন তিনি৷ বন্যা বিধ্বস্ত মানুষদের সাহায্যার্থে কেরলের ত্রাণ তহবিলে ১০ কোটি টাকা দান করার ঘোষণা করলেন মমতা৷

কেরলের অধিকাংশ এলাকা জলমগ্ন৷ ক্রমশই বিপজ্জনক আকার নিচ্ছে বন্যা পরিস্থিতি৷ কেন্দ্র সহ কেরলের পাশে দাঁড়িয়েছে অন্যান্য রাজ্যও৷ কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শনিবার শুধুমাত্র সমবেদনা জানিয়ে টুইট করেই খান্ত ছিলেন৷ আর সেই নিয়েই নানা মহলে গুঞ্জনের শেষ ছিল না৷ প্রশ্ন ওঠে কেন নীরব মমতা? এদিন তারই জবাবে ত্রাণের ঘোষণা মমতার৷

কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন জানিয়েছেন প্রচুর ত্রাণের প্রয়োজন৷ অন্তত ২০ হাজার কোটি টাকার দরকার৷ শনিবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আকাশপথে কেরলের বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন৷ প্রধানমন্ত্রীর তরফে ৫০০ কোটি টাকা দেওয়ার আশ্বাস মিলেছে৷ দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল তাঁর মন্ত্রিসভার প্রত্যেক সদস্যকে নিজেদের একমাসের বেতন ত্রাণ তহবিলে দান করার নির্দেশ দিয়েছেন৷

- Advertisement -

চলতি মরশুমে সর্বাধিক বৃষ্টি হয়েছে কেরলে। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী মৃত কমপক্ষে ৩৫২ জন৷ ২ লক্ষের বেশি মানুষকে অন্যত্র সরাতে হয়েছে। কাজ করছে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী।

কেরলের পাশে দাঁড়িয়েছে:
মহারাষ্ট্র সরকার, দান করেছে ১০ কোটি টাকা৷ সঙ্গে শুকনো খাবার।
উত্তরপ্রদেশ, দানের ঘোষণা ১৫ কোটি টাকা৷
গুজরাত সরকার, দানের করবে ১০ কোটি টাকা।
বিহার, দান করেছে ১০ কোটি টাকা৷
হরিয়ানা সরকার, দিচ্ছে ১০ কোটি টাকা৷
তেলেঙ্গানা সরকার, দিয়েছে ২৫ কোটি টাকা৷
পাঞ্জাব সরকার, দিয়েছে ১০ কোটি টাকা৷
স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া দিয়েছে ২ কোটি টাকা।

Advertisement ---
-----