স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: পরের বছর লোকসভা নির্বাচন৷ ওই নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদীকে প্রধানমন্ত্রীর পদ সরাতে উঠে পড়ে লেগেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ দেশের এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত ঘুরে বেড়াচ্ছেন ফেডারেল ফ্রন্ট গড়তে৷

কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই উদ্যোগকে ঘিরেই উঠল গুরুতর অভিযোগ৷ তিনি নাকি নরেন্দ্র মোদীর হাত শক্ত করতেই এই উদ্যোগ নিয়েছেন৷ এতে নাকি লাভ হবে বিজেপিরই৷

Advertisement

আরও পড়ুন: উমর খলিদকে গুলি, কলকাতায় বিজেপি দফতরে জানেন কারা হামলা করবে?

মঙ্গলবার এমনই অভিযোগ তুলেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী৷ এদিন বহরমপুরে এই অভিযোগ তুলেছেন তিনি৷ তাঁর অভিযোগ, ‘‘ফেডারেল ফ্রন্টের নামে নরেন্দ্র মোদীর হাত শক্ত করতে চাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷’’

কেন তিনি এই কথা বলছেন, সেই ব্যাখাও এদিন দিয়েছেন বহরমপুরের সাংসদ৷ তাঁর কথায়, ফেডারেল ফ্রন্টে যে সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলি রয়েছে, তাদের অবস্থান দেখলেই বিষয়টি স্পষ্ট হয়৷ এ প্রসঙ্গে তিনি টেনে এনেছেন তেলেঙ্গানার টিআরএস, ওডিশার বিজেডি-সহ একাধিক দলের নাম৷ যারা সম্প্রতি দু’টি ক্ষেত্রে বিজেপির পাশে দাঁড়িয়েছে৷

আরও পড়ুন: ‘পাকিস্তান গেলে সিধুকে দেশদ্রোহীর তকমা দেওয়া হবে’

অধীর চৌধুরী মনে করেন, নরেন্দ্র মোদীকে হারাতে পারে একমাত্র মহাজোট৷ কংগ্রেসের নেতৃত্বে গড়ে ওঠা এই জোটের সাফল্যের জন্য আগামী লোকসভা ভোটে বিজেপির বিরুদ্ধে একের বিরুদ্ধে এক লড়াই হওয়ায়ই বাঞ্ছনীয় বলে মনে করেন তিনি৷

তাঁর অভিযোগ, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এটা চান না৷ তাই তিনি ফেডারেল ফ্রন্টের নামে আরও একটি শক্তি তৈরি করতে চান৷ তৃতীয় ওই শক্তি আসলে সুবিধা করে দেবে বিজেপিরই৷

আরও পড়ুন: জট খুলতেই ভাঙড়ে শুরু হল সাবস্টেশন তৈরির কাজ

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি নয়াদিল্লিতে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ সেখানে গিয়ে একাধিক নেতার সঙ্গে বৈঠক করেছেন৷ গিয়েছিলেন দশ জনপথেও৷ সেখানে কংগ্রেসের সোনিয়া গান্ধী ও দলের সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে বৈঠক করেন৷

সেই বৈঠকের প্রসঙ্গও এদিন এসেছে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির বক্তব্যে৷ তিনি জানিয়েছেন, কালীঘাটে সোনিয়া-রাহুল আসেননি৷ বরং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গিয়েছিলেন৷ কংগ্রেস কাউকে বাড়ি থেকে বের করে দেয় না৷

আরও পড়ুন: পাঠচক্রকে পাঠ শিখিয়ে ‘সেকেন্ড বয়’ লাল-হলুদ

----
--