স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ফের প্রতিবাদের জন্য কবিতার ভাষাকে হাতিয়ার করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ছন্দের সঙ্গে ছন্দ মিলিয়ে প্রশ্ন তুললেন ভারতবাসীর ‘পরিচয়’ নিয়ে৷ কোন মাপকাঠিতে দেশের নাগরিকের গায়ে দেশদ্রোহী-অনুপ্রবেশকারীর তকমা লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে, সেই প্রশ্নও নিজের কলমে তুললেন তৃণমূল নেত্রী৷

Advertisement

ঘণ্টা খানেক আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজে ওই কবিতা আপলোড করা হয়৷ দু’পাতার কবিতার নিচে রয়েছে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর স্বাক্ষর৷ সঙ্গে আজকের তারিখ (৬ অগস্ট ২০১৮)৷

আরও পড়ুন: মিগ বিমানের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দৌড়চ্ছে ল্যাম্বরগিনি, দেখুন ভিডিও

দু’পাতার কবিতায় কোথাও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোনও রাজনৈতিক দলের নাম লেখেননি৷ কিন্তু যে প্রশ্নগুলি তিনি তুলেছেন, তা থেকে পরিষ্কার এই কবিতার মাধ্যমে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপিকেই বিঁধতে চেয়েছেন৷

মমতা তাঁর এই কবিতার নাম দিয়েছেন ‘পরিচয়৷’ কবিতার প্রথম লাইনেই তিনি লিখেছেন, ‘কী তোমার পরিচয়?’ এর পর প্রথম অনুচ্ছেদেই তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন এই কবিতা তিনি লিখছেন মূলত এনআরসি ইস্যুতে প্রতিবাদ করার জন্য৷ সেই কারণেই তিনি একের পর এক প্রশ্ন তুলে বোঝাতে চেয়েছেন, নিজের ভাষা, ধর্ম, খাবার, পরিচয়, শিক্ষা সম্বন্ধে স্পষ্ট ধারণা না থাকলে মানুষকে দেশদ্রোহী আখ্যা দেওয়া হচ্ছে৷

আরও পড়ুন: ৯/১১-র হাইজ্যাকারের মেয়েকে বিয়ে করল ওসামার ছেলে

আরও পড়ুন: দেশে উদ্বৃত্ত হবে বিদ্যুৎ : সিইএ

মমতা লিখেছেন, পাঁচ-পুরুষের নাম নথিভুক্ত না থাকলে ‘তুমি অনুপ্রবেশকারী’৷ পাশাপাশি কবিতার মাধ্যমে তিনি দাবি করেছেন, ভারতে এখন আর প্রতিবাদীদের কোনও জায়গা নেই৷ তাই তাঁর কবিতার শেষ চার লাইন,

‘তুমি কি একজন প্রতিবাদী?
তুমি শাসক বিরোধী৷
তবে তুমি দেশ বিরোধী,
তোমার জায়গা নেই৷’

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি অসমে এনআরসির চূড়ান্ত খসড়া তালিকা প্রকাশ হয়েছে৷ দ্বিতীয় দফায় প্রকাশ হওয়া ওই তালিকার নাম নেই ৪০ লক্ষ অসমবাসীর৷ ফলে তাঁদের ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে৷

আরও পড়ুন: রাষ্ট্রপতি কোবিন্দকে খুনের হুমকি মন্দিরের পুরোহিতের

তালিকা প্রকাশের দিন থেকেই এই ইস্যুতে সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সরাসরি তোপ দেগেছেন বিজেপির বিরুদ্ধে৷ বিজেপি উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এই কাজ করছে বলে মমতার অভিযোগ৷ তিনি নয়াদিল্লি গিয়ে এই ইস্যুতে সরব হন৷ অসমে প্রতিনিধি দল পাঠান৷ কিন্তু সেই প্রতিনিধি দলের সদস্যদের শিলচর বিমানবন্দরের বাইরে বেরোতেই দেওয়া হয়নি৷ তৃণমূলের সাংসদ-বিধায়কদের হেনস্তা করার অভিযোগ উঠেছে৷

এই পরিস্থিতিতে আক্রমণের ঝাঁঝ আরও বাড়িয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেই আক্রমণের পথে তাঁর কবিতাকে হাতিয়ার করলেন৷ নাম না করে সমালোচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর৷

আরও পড়ুন: ওয়ালমার্টে এবার নিজের ব্র্যান্ডের খেলনা নিয়ে হাজির ৬ বছরের মিলিওনেয়ার

মমতা লিখেছেন, ‘তোমার কি গোবর-ধন অ্যাকাউন্ট আছে?’, ‘তুমি কি ‘মন কি বাত’ শোনো?’, ‘তোমার কি ফোনে ‘আধার’ আছে?’

মন-কি-বাত প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠান৷ প্রতিমাসের শেষ রবিবার তিনি আকাশবাণীর মাধ্যমে দেশের মানুষের কাছে নিজের বার্তা দেন৷ এবার বাজেটে কেন্দ্রীয় সরকার গোবরধন যোজনা এনেছে৷ যা নিয়ে নরেন্দ্র মোদী বারবার জনসভায় বক্তব্য রেখেছেন৷ একই সঙ্গে আধার নিয়ে সবচেয়ে বেশি তৎপর মোদী সরকার৷

ফলে ওই লাইনগুলির মাধ্যমে মোদীকেই বিঁধেছেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷ এখন দেখার বিজেপি মমতার এই কবিতার কী জবাব দেয়!

পরে আবার ওই কবিতাকে ইংরেজিতে অনুবাদ করা হয়৷ সেই কবিতাও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক পেজে আপলোড করা হয়৷ বাংলা কবিতাটি আপলোডের কয়েক ঘণ্টা পর ইংরেজিতে অনুবাদ করা কবিতাটি অপলোড করা হয়৷

শুধু ইংরেজি নয় হিন্দিতেও ওই কবিতাকে অনুবাদ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেই কবিতাও তাঁর ফেসবুক পেজেও আপলোড করা হয়৷

আরও পড়ুন: Breaking- ভয়াবহ বিস্ফোরণ বিমানবন্দরে, আহত ২০

আরও পড়ুন: হাসপাতালে আগুনের জেরে আতঙ্ক ডায়মন্ড হারবারে

আরও পড়ুন: হালিশহরে তৃণমূল কাউন্সিলরের বাড়িতে দুষ্কৃতী হামলা

তিনটি কবিতাই প্রায় সঙ্গেই সঙ্গেই ভাইরাল হয়ে যায়৷ হু হু করে শেয়ার করতে থাকেন বহু নেটিজেন৷ অনেকে লাইক করেন৷ কমেন্ট করে অনেকেই এই কবিতার প্রশংসা করেন৷

আরও পড়ুন: তৃণমূলের সভায় প্রাণঘাতী হামলার আশঙ্কায় অভিযোগ দায়ের

----
--