হরিসভায় মতুয়াদের এনআরসি নিয়ে সরব হওয়ার পরামর্শ মমতাবালার

বারাকপুর: যেখানেই মতুয়া মহাসংঘের হরিসভা হবে, সেখানেই এনআরসি নিয়ে সরব হওয়ার পরামর্শ দিলেন মমতাবালা ঠাকুর৷ মমতাবালা ঠাকুর তৃণমূলের সাংসদ ঠিকই৷ কিন্তু তাঁর আরও বড় পরিচয় মতুয়া সংঘের প্রধান তিনি৷ রবিবার বিকেলে হাবড়ায় মতুয়া মহাসংঘের নতুন কার্যালয়ের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে গিয়ে এনআরসি নিয়ে সরব হন বনগাঁর এই সাংসদ৷

সম্প্রতি তৃণমূলের প্রতিনিধিদল গিয়েছিল অসমে৷ প্রতিনিধিদলে ছিলেন সুখেন্দুশেখর রায়, মহুয়া মৈত্র, অর্পিতা ঘোষ, মমতাবালা ঠাকুর৷ কিন্তু শিলচর বিমানবন্দরে নামতেই তাঁদের হেনস্তা করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে৷ এই নিয়ে তোলপাড় হয় রাজ্য রাজনীতি৷

আরও পড়ুন: জানেন কৌশিকী অমাবস্যায় মা তারা কী বললেন অনুব্রত মণ্ডলকে

- Advertisement -

এদিনের অনুষ্ঠানে সে প্রসঙ্গ তুলে মমতাবালা ঠাকুর বলেন, ‘‘কিছুদিন আগে অসমে দাঁড়িয়ে যে ঘটনা হল, আমার এটাই গর্ব যে আমার জাতির জন্য আমাকে মুখ্যমন্ত্রী সেখানে পাঠিয়েছিলেন৷ ওখানে আমি যদি জেলেও ঢুকতাম তাহলেও আরও বেশি গর্ব অনুভব করতাম৷ আমার সমাজ, জাতির জন্য কিছু করতে পেরেছি৷’’

এরপরই বনগাঁর এই তৃণমূল সাংসদ বলেন, ‘‘আমরা ওপার বাংলা থেকে এসেছি যারা তখনও ভারতেরই ছিলাম৷ এখনও ভারতেরই নাগরিক৷ জানি না কোন উদ্দেশে নতুন আইন ওরা আনতে চাইছে৷ যেখানেই হরিসভা হোক, যেখানেই আমাদের উৎসব হোক না কেন আমাদের কিন্তু এনআরসি নিয়ে কথা বলা উচিৎ৷’’

হাবড়ার পূর্ব কামারথুবা এলাকায় মতুয়া মহাসংঘের নতুন এই শাখা কার্যালয়ের উদ্বোধন হল রবিবার৷ প্রায় ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নতুন এই কার্যালয়ে বসানো হয়েছে অত্যাধুনিক ১৮০০ ওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প৷ কার্যালয়ে এদিন উন্মোচন করা হয় বি আর আম্বেদকরের মূর্তি৷ সঙ্গে দরিদ্র শিশুদের মধ্যে ইংরেজি শিক্ষার প্রচলনের জন্য খোলা হয় ইংরাজি কোচিং সেন্টার৷

আরও পড়ুন: breakingNews- একাধিক যাত্রী নিয়ে মাঝ আকাশ থেকে ভেঙে পড়ল বিমান

Advertisement ---
-----