জাতীয় পতাকা তুলতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: ৭২ তম স্বাধীনতা দিবসের চিত্রটা সব জেলাতে ভালো হলেও মুর্শিদাবাদের চিত্রটা অনেকটাই আলাদা৷ মুর্শিদাবাদ জিয়াগঞ্জ ষ্টিমার ঘাট এলাকায় জাতীয় পতাকা লাগাতে গিয়ে পরে মৃত্যু হল এক যুবকের।

মৃত যুবকের নাম বিশাল কেদার (১৯)৷ মৃত যুবক জিয়াগঞ্জ ষ্টিমার ঘাট এলাকার বাসিন্দা৷ তিনি পুরসভার এক অস্থায়ী কর্মী ছিলেন৷

আরও পড়ুন: স্বাধীনতা দিবস উদযাপন জেলায় জেলায়

জানা গিয়েছে, প্রতিবছরই এখানে স্বাধীনতা দিবসের পতাকা তোলা হয়৷ আর এই পতাকা লাগাতে ওঠেন বিশাল কেদার সহ তার তার তিন বন্ধু। প্রতিবছরের ন্যায় এই বছেরও ইংরেজ আমলের প্রায় ৫০ ফুট উচ্চতার একটি টেলিফোনের পোলে পতাকা লাগতে ওঠে চারজন বন্ধু।

সেই মত এই বছরও বিশাল কেদার নামে ওই যুবক পোল ওঠে পতাকা লাগাতে৷ সেখানে গিয়ে শারীরিক অসুস্থ্যতার কারণে পড়ে যায় পাশের বাড়ির ছাদে৷ পড়ে গিয়ে গুরুতর জখম হন তিনি৷ স্থানীয়রা তাঁকে উদ্ধার করে জিয়াগঞ্জ গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যায়৷ সেখানে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন: স্বাধীনতা দিবসে পুলিশ কর্মীদের বিশেষ পুরস্কার

স্বাধীনতা দিবসে এই রকম ঘটনার জেরে শোকের ছায়া নেমে এসেছে গোটা এলাকায়। জাতীয় পতাকা লাগাতে গিয়ে এইভাবে অস্বাভাবিক মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না পরিবারের সদস্যরা ও এলাকার বাসিন্দারা। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে জন্য লালবাগ মহকুমা হাসপাতালে মর্গে পাঠিয়েছে। মৃত যুবকের স্ত্রী অর্ন্তঃসত্ত্বা। এরপর ওই স্থানে এদিন আর স্বাধীনতা দিবসের পতাকা তোলা হয়নি।

আরও পড়ুন: ছত্তিশগড়ে আইইডি বিস্ফোরণে আহত দুই জওয়ান

----
-----