ফাইল ছবি

তিরুঅনন্তপুরম: তিনি ভালো সাঁতার কাটতে জানেন৷ অদম্য সাহস নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন কেরল বন্যার উদ্ধারকাজে৷ সাঁতার কেঁটে পৌঁছে যান জলবন্দি মানুষের কাছে৷ জীবনের বাজি রেখে কেরলের আলাপ্পুঝা জেলার চেনগান্নৌর থেকে ৩০ জন অসহায় মানুষকে উদ্ধার করে আনেন পেশায় চা বিক্রেতা সদাশিবম৷ সেই তিনিই আজ হয়ে পড়েছেন অসহায়৷ চোখে গুরুতর আঘাত লাগায় হারাতে চলেছেন দৃষ্টিশক্তি৷

বর্তমানে সদাশিবমের চিকিৎসা চলছে আলাপ্পুঝা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে৷ চিকিৎসকরা জানিয়ে দিয়েছেন, একটি চোখের দৃষ্টিশক্তি হারাতে পারেন তিনি৷ চোখে একটি অপারেশনও হয় তাঁর৷ দৃষ্টিশক্তি যাতে না হারান তার জন্য আরও একটি অপারেশনের প্রয়োজন৷ সংক্রমণ দ্বিতীয় চোখেও ছড়িয়ে পড়ায় খুব তাড়াতাড়ি সেই অপারেশন করতে হবে বলে জানিয়ে দেন চিকিৎসকরা৷

সরকারি হাসপাতালে খুব তাড়াতাড়ি অপারেশন তারিখ পাওয়াই ভাগ্যের ব্যাপার৷ এ দিকে বেসরকারি হাসপাতালে অপারেশ করাতে গেলে কম করেও দেড় লক্ষ টাকার ধাক্কা৷ সামান্য চা বিক্রি করে এত টাকা দিয়ে অপারেশন করার মতো সাধ্য তাঁর নেই৷ তিন সন্তানকে নিয়ে সদাশিবমের পরিবার৷ তিনিই একমাত্র রোজগেরে ব্যক্তি৷ সম্বল শুধু একটুকরো জমি৷ সেটা বিক্রি করেও অপারেশনের টাকা জোগাড় হবে না৷ তাই অপেক্ষা কোনও সহৃদয় ব্যক্তির৷

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে সদাশিবমের খবর প্রকাশের পর প্রাক্তন এক বিধায়ক ছুটে এসেছেন সাহায্যের জন্য৷ জানিয়েছেন, স্থানীয় প্রশাসন পাশে আছে সদাশিবমের৷

----
--