ধর্ষণে বাধা দেওয়ায় গৃহবধূকে কোপাল পড়শি যুবক

স্টাফ রিপোর্টার, ইংরেজবাজার: ধর্ষণে বাধা দেওয়ায় গৃহবধূকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে কোপাল এক যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহ জেলার রতুয়া থানা এলাকায় রতনপুরে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত মহিলার স্বামী কর্মসূত্রে ভিন রাজ্যে থাকেন। সেই সুযোগে বহুবার ওই গৃহবধূর সঙ্গে মিলিত হওয়ার চেষ্টা করেছে অভিযুক্ত যুবক সুকারীয়া চৌধুরী। রবিবার রাতে পরিস্থিতি চরমে উঠলে ধারাল অস্ত্র দিয়ে ওই মহিলাকে কোপায় অভিযুক্ত।

প্রতিবেশী হওয়ার সুবাদে নিত্যদিন ওই যুবক এবং আক্রান্ত মহিলার দেখা হতো। দীর্ঘদিন ধরেই ওই মহিলাকে অভিযুক্ত উত্যক্ত করছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। বাড়ি ফাকা থাকার সুযোগে সুকারীয়া ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। স্বভাবতই তাকে বাধা দেয় ওই মহিলা।

গৃহবধূর চিৎকারে পরিবারের অন্য লোকেরা জেগে যায়। এতেই ক্ষুব্ধ হয়ে মহিলার গলায় ধারাল অস্ত্রের কোপ বসায় অভিযুক্ত সুকারীয়া। গলার নলিতে ধারাল ছুড়ি দিয়ে আঘাত করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

আক্রান্ত মহিলাকে প্রথমে স্থানীয় চিকিৎসাকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে মালদহ মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। এই মুহূর্তে সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন।

গৃহবধূকে খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের হয়েছে মালদহ জেলার রতুয়া থানায়। যদিও অভিযুক্ত সুকারীয়া চৌধুরী এখনও ফেরার। তার খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। সমগ্র ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রতুয়া থানার পুলিশ।

----
-----