ফাইনালে প্রিমিয়র লিগ চ্যাম্পিয়নরা

স্ট্যাফোর্ডশায়ার: ওয়েম্বলির রাত ফিরল না বটে, তবে জয়ের ধারা বজায় রেখে লিগ কাপের ফাইনালে জায়গা করে নিল ম্যাঞ্চেস্টার সিটি৷ ঘরের মাঠে প্রথম লেগের সেমিফাইনালেই কার্যত খেতাবি লড়াইয়ের টিকিট নিশ্চিত করে ফেলেছিল গুয়ার্দিওয়ালার দল৷ সেবার তারা ৯-০ গোলে পরাজিত করে বার্টন অ্যালবিয়নকে৷ ফিরতি লেগে বার্টনের ডেরায় ১-০ গোলে জয় তুলে নেয় সিটি৷ ফলে দুই পর্ব মিলিয়ে ১০-০ গোলের ব্যবধনে এগিয়ে থেকে ফাইনালে ওঠে প্রিমিয়র লিগ চ্যাম্পিয়নরা৷

ম্যাঞ্চেস্টার সিটির হয়ে প্রথমার্ধে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেন সার্জিও আগুয়েরো৷ দ্বিতীয়ার্ধে বেশ কয়েকটা সহজ সুযোগ পেলেও জয়ের ব্যবধান বাড়িয়ে নিতে ব্যর্থ হয় সিটি৷

আরও পড়ুন: বিমান দুর্ঘটনায় তারকা ফুটবলারের মৃত্যুর আশঙ্কা

- Advertisement -

ম্যান সিটির সামনে সুযোগ ছিল টুর্নামেন্টের ইতিহাসে দুই পর্ব মিলিয়ে সব থেকে বড় ব্যবধানে জয় তুলে নেওয়ার৷ ফিরতি লেগে এক গোলেই সন্তুষ্ট থাকায় রেকর্ডের খুব কাছে এসেও থমকে যেতে হয় ‘দ্য স্কাই ব্লুজ’দের৷

লিগ কাপে এখনও পর্যন্ত দুই লেগের ম্যাচে সব থেকে বড় ব্যবধানে জয়ের নজির রয়েছে যুগ্মভাবে লিভারপুল, ওয়েস্টহ্যাম, ওয়াটফোর্ড ও এভার্টনের নামে৷ চার দলই লিগ কাপে ১১ গোলের ব্যবধানে জয় তুলে নিয়েছে আগে৷ যদিও পরিসংখ্যানের বিচারে লিভারপুলের রেকর্ডকেই সবার উপরে রাখা হয়৷

আরও পড়ুন: বুট জোড়া তুলে রাখলেন বোল্ট

ম্যাঞ্চেস্টার সিটি দুই পর্ব মিলিয়ে ১০ গোলের ব্যবধানে সেমিফাইনালের লড়াই জেতে৷ প্রথম লেগে আরও একটি রেকর্ড হাতছাড়া করেছিল গুয়ার্দিওয়ালার দল৷ ইএফএল কাপে এক ম্যাচে সর্বাধিক ১০ গোলে জয়ের রেকর্ড রয়েছে লিভারপুল ও ওয়েস্টহ্যামের৷ ম্যান সিটি প্রথম লেগে ৯-০ গোলেই সন্তুষ্ট থাকে৷

ফিরতি ম্যাচের ২৬ মিনিটে মাহরেজের পাস থকে সিটির হয়ে জয়সূচক গোল করেন আগুয়েরো৷ দ্বিতীয়ার্ধে দানিলো, জেসুস ও ফডেন একটি করে সহজ সুযোগ নষ্ট করেন৷