কলকাতা: একে ৪৭, গ্রেনেড ছিল একসময়ের সঙ্গী। বিস্কোরণের নিখুঁত ছক কষায় তিনি ছিলেন পারদর্শী। সেই ব্যক্তিই এবার SET পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে নজির গড়লেন। বর্তমানে তার ঠিকানা প্রেসিডেন্সি সংশোধনাগার।

শিলদা বিস্ফোরণ কাণ্ডে অন্যতম মাস্টারমাইন্ড ছিল মাওবাদী নেতা অর্নব দাম ওরফে বিক্রম। বিক্রম সিপিআই (মাওবাদী ) -র রাজ্য কমিটির সদস্য ছিল। পাশাপাশি সে বিহার, ঝাড়খন্ড এবং ওড়িশাতেও যথেষ্ট সক্রিয় ছিল। 2012 সালে শিলদাকান্ডের ঘটনার পর তাকে পুরুলিয়া থেকে গ্রেফতার করা হয়।

সেই সময় থেকেই জেলবন্দি এক সময়ের কুখ্যাত মাও নেতা বিক্রম। সংশোধনাগারে বসেই সে State Eligibility Test পরীক্ষার প্রস্তুতি নেয়। পরীক্ষায় সফল হয়ে সে নজির গড়ল বলে মনে করা হচ্ছে। শুক্রবার তার মার্কশিট স্পীড পোস্টের মাধ্যমে তার বাবার কাছে পৌঁছয়।

এবার সরকারের অনুমতি পেলে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় এবং যাদবপুরের বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো নামী উৎকর্ষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যাপনা করতে পারবে এক সময়ের এই মাও নেতা।

আরও পড়ুন- শহর সহ রাজ্যকে মুরিয়ে ফেলা হল কেন্দ্রীয় বাহিনীর নিরাপত্তার চাদরে

গড়িয়ার বাসিন্দা অর্নব প্রাক্তন বিচারক এস কে দামের ছেলে। মেধাবী ছাত্র হিসাবেই পরিচিত রামকৃষ্ণ মিশনের ছাত্র অর্নব। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা পাস করার পর আইআইটি খরগপুরে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পরাশুনো শুরু করে সে। তবে তার তৃতীয় সেমিস্টারে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে যায় অর্নব। ২০০৫ সালেও তাকে মাওবাদী কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করে পুলিশ। কয়েকদিন জেলবন্দি থাকার পর জামিনে ছাড়া পায় সে।

মন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস সহ সংশোধনাগারের অন্যান্য আধিকারিকরা তার এই সফলতায় অভিনন্দন জানিয়েছে।