মমতার দলের বিধায়ককে খুনের হুমকি মাওবাদীদের

স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের এক বিধায়ককে খুন করার হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠাল মাওবাদীরা৷ উত্তর ২৪ পরগনার নোয়াপাড়ার বিধায়ক সুনীল সিংকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে৷

ওই তৃণমূল বিধায়ক ছাড়া আরও দু’জনকে খুনের হুমকি দিয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে৷ ওই দু’জন গারুলিয়া পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর৷ তাঁদের স্বপরিবারে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে৷

আরও পড়ুন: ‘মানুষ চাননি, শুধু কংগ্রেসের দয়ায় মুখ্যমন্ত্রী হয়েছি’

- Advertisement -

পুলিশ সূত্রে খবর, সপ্তাহখানেক আগে ব্যক্তিগত কাজে উত্তরবঙ্গ গিয়েছিলেন নোয়াপাড়ার বিধায়ক তথা গারুলিয়া পুরসভার চেয়ারম্যান সুনীল সিং৷ রবিবার রাতে বাড়ি ফেরেন৷ ফিরে দেখেন তাঁর নামে একটি চিঠি কলকাতা থেকে স্পিড পোস্টের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে৷

সোমবার তিনি চিঠি খুলে দেখেন মাওবাদীদের তরফে লেখা হয়েছে৷ কালো কালিতে বাংলায় লেখা ওই চিঠিতে সুনীল সিংকে স্বপরিবারে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে৷

আরও পড়ুন: মহকুমাশাসক নিগ্রহের ঘটনায় ধৃত তিন শিক্ষকের জামিন

চিঠিতে লেখা হয়েছে, পুরনো ঠিকাদারদের বকেয়া মেটাতে হবে৷ তাদের কাজ দিতে হবে। ঠিকাদারদের পুরনো বকেয়া না মেটালে স্বপরিবারে খতম করে দেওয়া হবে গারুলিয়া শহরের সমস্ত তৃণমূল নেতাদের খতম করা হবে। গারুলিয়াতে সিং পরিবার বলে কিছু থাকবে না। সুনীলবাবু যতই পুলিশ বা নিরাপত্তারক্ষী নিয়ে ঘুরুক, তাঁকে খতম করতে মাওবাদীদের পাঁচ মিনিটও সময় লাগবে না।

সোমবার গারুলিয়া পুরসভাতে নিজের অফিসে বসে সেই চিঠি খুলে সুনীলবাবু ফোন করেন নোয়াপাড়া থানায়। পুলিশকে গোটা বিষয়টি প্রাথমিক ভাবে ফোনেই জানান তিনি। সুনীল সিং বলেন, ‘‘এই হুমকি দেওয়ার ঘটনা গত তিনমাস ধরে চলছে। একইরকম হুমকি চিঠি প্রথমে পেয়েছিলেন গারুলিয়া পুরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর মোনালিসা সরকার। তাঁর বাড়ির সামনে থেকে সেই সময় তাজা বোমাও উদ্ধার করেছিল পুলিশ। তবে গত এক সপ্তাহ আগে ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং আমি এখন একই চিঠি পেলাম।’’

আরও পড়ুন: জেলে সম্প্রীতির নজির! মুসলিমদের সঙ্গেই রোজা করছেন হিন্দুরাও

এর পরই তাঁর সংযোজন, ‘‘আমার পুরসভায় ঠিকাদারদের অনেক বেশি কিছু টাকা বকেয়া নেই। ১০-২০ হাজার টাকা কারও কারও হতে পারে। সেটা এত বড় বিষয় নয়।’’ সেই কারণেই তিনি এই হুমকি নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন৷ এই ঘটনার পিছনে আদৌ মাওবাদীরা জড়িয়ে আছেন, কি না সেই প্রশ্ন তুলেছেন৷ তাঁর কথায়, ‘‘আমার মনে হচ্ছে মাওবাদী পরিচয় দিয়ে কেউ এরকম হুমকি দিচ্ছে। আমি পুলিশকে বলেছি অবিলম্বে তদন্ত করে দোষীকে গ্রেফতার করতে হবে। গারুলিয়াতে মাওবাদীদের কোন অস্তিত্ব নেই।’’

সুনীল সিং ছাড়াও গারুলিয়া পুরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর মোনালিসা সরকার ও সুনীল সিং ঘনিষ্ঠ তৃনমূল কর্মী অনিল সাউকেও হুমকি চিঠি দেওয়া হয়েছে৷ সোমবার মোনালিসা সরকার বলেন, ‘‘আমি তিনমাস আগে প্রথম একই রকম হুমকি চিঠি পেয়েছিলাম। আমার বাড়ির সামনে রাখা হয়েছিল বোমা, বাড়ির সামনের একটি টোটোতেও ভাংচুর করা হয়েছিল। তবে মাওবাদী বলে গারুলিয়া শহরে কিছু নেই। কেউ চক্রান্ত করে এসব করছে। পুলিশের উচিত তাকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে দোষী ব্যক্তিকে সকলের সামনে নিয়ে আসা।’’

আরও পড়ুন: প্রেমের কাঁটা নিয়ে গেল শ্রীঘর পর্যন্ত

এদিকে নোয়াপাড়া থানা সূত্রে খবর, তারা গোটা ঘটনার তদন্তে নামলেও এই চিঠির বিষয়ে এখনও কোনও সূত্র পায়নি । তবে যে চিঠিগুলি মাওবাদীদের নাম করে পাঠানো হয়েছে তার প্রত্যেকটি চিঠির হাতের লেখা একই এবং কলকাতার একই ঠিকানা থেকে ওই চিঠি পাঠানো হয়েছে। বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের গোয়েন্দা বিভাগও এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Advertisement ---
---
-----