নিউ ইয়র্ক: আগামী বাড়ি এসে স্ত্রীকে চমকে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তাঁকেই যে চমকে যেতে হবে এ কথা ঘুণাক্ষরেও আঁচ করতে পারেননি।

মার্কিন ওই মেরিন কর্পস( সেনা জওয়ান)-এর স্ত্রী প্রায়শয় অভিযোগ করতেন, কাজের চাপে তিনি নাকি স্ত্রীকে মোটেও সময় দিতে পারেননা। ওই মেরিন তাই স্থির করেন, একদিন তাড়াতাড়ি ফিরে এসে স্ত্রীকে চমকে দেবেন।

Advertisement

কিন্তু কাজ শেষে জলদি বাড়ি ফিরে এসে তিনি যা দেখলেন, তাতে মাথায় বজ্রাঘাত। স্ত্রী এক অন্য পুরুষের সঙ্গে শয্যায় মিলিত হচ্ছেন। বন্ধ ঘরের বাইরে থেকে শোনা যাচ্ছে স্ত্রীয়ের তীব্র সুখশব্দ। তিনি ফিরে এসেছেন টের পেতেই ওই যুবক দরজা খুলে তড়িঘড়ি পালিয়ে যান। মেরিনের স্ত্রী পোশাক পরারও সময় পাননি।

ওই মেরিন বাড়ি ফেরার সময় মোবাইল ক্যামেরায় এক বন্ধুর সঙ্গে ভিডিও চ্যাট করছিলেন। অ্যাপার্টমেন্টে ফিরে স্ত্রীয়ের এহেন কার্যকলাপ গোটাটাই বন্দী করে ফেলেন মুঠোফোনে। চিৎকার করে বলতে থাকেন, “আমাকে ঠকালে। আমি তোমার জীবন শেষ করে দেব।”

“তুমি এখানে এখন কী করছো?” নগ্ন অবস্থায় কাতর স্বরে বলতে থাকেন মেরিনের স্ত্রী।

“আমি? আমি কী করছি? আমাকে জিজ্ঞেস করছো? তুমি আমাকে ঠকালে?” রাগে ফেটে পড়ে বলেন ওই মার্কিন সেনা। সে গোটা ভিডিওটাই ফেসবুকে পোস্ট করেছেন গত ২৮ জুলাই। স্ত্রীকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছেন। আইনি মতে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করব, মেল অনলাইনকে জানিয়েছেন তিনি।

----
--