‘ভবিষ্যতের ভূত’ দেখার দাবিতে মানুষের জমায়েত

কলকাতা: শুক্রবার মুক্তি পেলেও শনিবার হঠাৎ অজ্ঞাত কারণে অনীক দত্তের ‘ভবিষ্যতের ভূত’-এর প্রদর্শন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে কলকাতায়৷ তারপরে এমন ঘটনার প্রতিবাদে রবিরার বেলা তিনটে নাগাদ ধর্মতলার মেট্রো চ্যানেলে উপস্থিত হন অনীক এবং এ ছবির কলাকুশলীরা। এর পাশাপাশি বহু দর্শকও সেখানে হাজির হয়েছিলেন এই ছবিটি দেখার দাবি নিয়ে৷

আরও পড়ুন: ছুটির দিন রাতে শহরে জোড়া অগ্নিকাণ্ড

‘ভবিষ্যতের ভূত’ ছবিটি হল থেকে এভাবে নামিয়ে রাখার প্রতিবাদে নাট্যকর্মীদেরও এদিন সেখানে হাজির হতে দেখা যায়৷ এদিকে আবার ওই প্রতিবাদ সভায় দেখা যায় অম্বিকেশ মহাপাত্রের মতো ‘আমরা আক্রান্ত’এর সদস্যদেরও৷ উপস্থিত ছিলেন প্রবীন চলচ্চিত্র পরিচালক তরুণ মজুমদারও৷ এমন ঘটনার জন্য সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ও কড়া চিঠি দিয়েছেন বলে এদিনের প্রতিবাদীরা দাবি করেন৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: লন্ডনের পাক দূতাবাসের সামনে ‘পাকিস্তান মুরদাবাদ’ স্লোগান

প্রসঙ্গত, ছবিটিতে দেখান হয়েছে শাসক বা প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে যে বা যাঁরা আঙুল তুলেছেন তাঁরাই শেষমেশ ভূতে পরিণত হয়েছেন। ফলে ব্যঙ্গের সুরে এ রাজ্যের রাজনৈতিক অবস্থা ছবিটিতে কিছুটা প্রতিফলিত হয়েছে ৷ বর্তমান রাজ্যের অবস্থার পাশাপাশি আগের জমানায় ঘটে যাওয়া বেশ কিছু ঘটনাও তুলে ধরা হয়েছে এই ছবিতে। যা দেখে বহু দর্শকের মনে হয়েছে ছবিটিতে ভূতেদের সাহায্যে অন্যায়ের প্রতিবাদের ইঙ্গিত মিলেছে যা হয়তো এ রাজ্যের প্রভাবশালীদের ভাল লাগেনি৷

আরও পড়ুন: বিধায়ক খুনের পর এবার হুমকি ফোন এল তৃণমূল সাংসদের কাছে

‘ভবিষ্যতের ভূত’ দেখার দাবি নিয়ে এদিনের প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত সকলেরও প্রায় একই প্রশ্ন- কেন এবং কার নির্দেশে ছবি দেখান হচ্ছে না? আদৌ ফের ছবিটি দেখান হবে কি না? পাশাপাশি সেন্সর বোর্ড যেখানে ছবিটিকে ছাড়পত্র দিয়েছে সেখানে কারও কোনও লিখিত নির্দেশ ছাড়াই এভাবে সিনেমা হল কর্তৃপক্ষ নামিয়ে রাখতে পারে কি না তা নিয়েও কেউ কেউ আইনগত প্রশ্নও তুলেছেন?