বুখারি হত্যার মাস্টারমাইন্ড বেঙ্গালুরু থেকে এমবিএ করেছে

শ্রীনগর: রাইজিং কাশ্মীর পত্রিকার সম্পাদক সুজাত বুখারি হত্যার তদন্তে উঠে এল বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য৷ ইতিমধ্যে তিন আততায়ীকে চিহ্নিত করা গিয়েছে৷ তাদের মধ্যে এক পাকিস্তানী জঙ্গি৷ তবে বুখারি হত্যার মাস্টারমাইন্ড হিসাবে উঠে এসেছে ৪৮ বছর বয়সী লস্কর জঙ্গি সজ্জদ গুলের নাম৷ এমবিএ পাশ সজ্জদ পাকিস্তানের রাওয়ালপিণ্ডিতে থাকে৷

পুলিশ জানিয়েছে, লস্কর প্রধান হাফিজ সইদের কাছ থেকে বুখারিকে হত্যার নির্দেশ পেয়ে খুনের পরিকল্পনা করে সজ্জদ৷ জন্মসূত্রে কাশ্মীরি সজ্জদ এক সময় বেঙ্গালুরু থেকে এমবিএ পাশ করে৷ সে স্থানীয় জঙ্গিদের এই কাজে নিযুক্ত করে৷ বিভিন্ন কারণে বুখারি লস্কর জঙ্গিদের নিশানায় ছিলেন৷ রমজান মাসে কেন্দ্রীয় সরকার কাশ্মীরে অস্ত্রবিরতির সিদ্ধান্ত নেয়৷ সেই সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়েছিলেন বুখারি৷ তখনই লস্কর জঙ্গি ও অন্যান্য জঙ্গি সংগঠনের আরও রোষানলে পড়ে যান৷ তদন্তে জানা গিয়েছে, বুখারি হত্যার ছক মার্চ মাসে করা হয়৷

এমবিএ পাশ সজ্জদদের আরও কিছু টেকনিক্যাল ডিগ্রিও আছে৷ কয়েক বছর আগে সে জঙ্গি দলে ভিড়ে যায়৷ বিভিন্ন সন্ত্রাসবাদ কার্যকলাপে সক্রিয়ভাবে সে অংশ নিয়েছে৷ পুলিশের রেকর্ড বলছে, তাঁকে গ্রেফতার করা হয়৷ শ্রীনগরের সেন্ট্রাল জেল ও দিল্লির তিহার জেলেও বেশ কিছুদিন কাটিয়েছে৷ পরে পালিয়ে সে পাকিস্তানে চলে যায়৷

- Advertisement -

বুখারিকে হত্যার আগে একটি অনামী ব্লগে তাঁকে হত্যার হুমকিও দেওয়া হয়৷ এই ব্লগটি খোলে সজ্জদই৷ বুখারি সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে প্রচারের কাজে এই ব্লগ খোলা হয়৷ সেখানে বুখারিকে ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলে তোপ দেগেছিল এই লস্কর জঙ্গি৷ বুখারি ছাড়াও জঙ্গিদের নিশানায় আছে আরও বেশ কিছু সাংবাদিক, শান্তির পক্ষে থাকা মানবাধিকার কর্মীরা ও অবসরপ্রাপ্ত র’ এর অফিসাররা৷ এক তদন্তকারী আধিকারিক জানিয়েছেন, এটা জলের মতো পরিস্কার বুখারি হত্যার ছক পাকিস্তানে বসেই করা হয়৷ এবং হাফিজের নির্দেশে তাঁকে খুন করা হয়৷ তদন্ত প্রায় শেষের মুখে৷ তবে আততায়ীরা এখনও গা ঢাকা দিয়ে আছে নাকি তাদের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ তা পরিস্কার নয়৷

Advertisement
---