পুজোর উদ্বোধনকে ঘিরেও তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দলে চাঞ্চল্য মেখলিগঞ্জে

স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: পুজোর উদ্বোধনকে ঘিরেও প্রকাশ্যে এল তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল৷ ঘটনাস্থল, কোচবিহারের মেখলিগঞ্জ৷ বৃহস্পতিবার একটি পুজোর উদ্বোধন সেরে ফিরছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের মেখলিগঞ্জের প্রাক্তন ব্লক সভাপতি লক্ষ্মীকান্ত সরকার৷ রাস্তায় পথ আটকে গাড়ি থেকে নামিয়ে মারধর ও ছুরি দিয়ে এলোপাথারি আঘাত করার অভিযোগ উঠেছে দলের বর্তমান ব্লক সভাপতি তপন দামের গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে৷ ঘটনার জেরে পাল্টা মারে আহত হয়েছেন তপনবাবুর ভাই।

খবর পেয়ে পুলিশ রক্তাক্ত লক্ষ্মীকান্তবাবুকে উদ্ধার করে প্রথমে জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়৷ পরে তাঁকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়৷ ঘটনার জেরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে৷ যদিও দলের জেলা সভাপতি তথা উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ গোষ্ঠী দ্বন্দের তত্ত্ব মানতে চাননি৷ তাঁর দাবি, ‘‘একটি পুজোকে ঘিরে গন্ডোগোলের জেরেই এই ঘটনা৷ এর সঙ্গে রাজনীতি জড়িত নয়৷’’ পুলিশ সুপার অনুপ জয়সওয়াল জানিয়েছেন, ‘‘ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে৷ অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চলছে৷’’

তৃণমূল সূত্রের খবর, মেখলীগঞ্জের বিধায়ক অর্ঘ্যরায় প্রধানের বিরোধী হিসেবে পরিচিত লক্ষ্মীকান্তবাবু৷ গত বিধানসভা নির্বাচনে তিনি ব্লক সভাপতির পদে থেকেই সরাসরি অর্ঘ্যরায়ের বিরোধিতা করেছিলেন। নির্বাচনের পর লক্ষ্মীকান্তবাবুকে সরিয়ে ব্লক সভাপতি করা হয় তপন দামকে। তখন থেকেই তপন ও লক্ষ্মীকান্ত গোষ্টীর বিবাদের সূত্রপাত৷ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাংসদ বিজয়চন্দ্র বর্মণের গাড়িতে স্থানীয় একটি ক্লাবের পুজোর উদ্বোধনে গিয়েছিলেন লক্ষ্মীকান্ত সরকার৷

- Advertisement -

আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল বর্তমান ব্লক সভাপতি তপন দামকেও। কিন্তু লক্ষ্মীকান্তবাবুকে বসে থাকতে দেখে মঞ্চে উঠতে অস্বীকার করেন তপন দাম। অনুষ্ঠান সেরে সাংসদের সঙ্গে গাড়িতে করে ফেরার পথে পথ আটকায় দুষ্কৃতীরা৷ সাংসদের সামনেই লক্ষ্ণীকান্তবাবুকে গাড়ি থেকে নামিয়ে মারধর ও ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়৷

Advertisement ---
---
-----