বার্সেলোনা: চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ফুটবলবিশ্ব দেখল দুই তারকা ফুটবলালের কেরামতি৷ ভারতীয় সময় মঙ্গলবার রাতে দুরন্ত হ্যাটট্রিক জুভেন্তাসকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে তুলেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। আর বুধবার রাতে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে ভক্ত-সমর্থকদের উচ্ছ্বাসে ভাসালেন লিওনেল মেসি। লিয়ঁ-র বিরুদ্ধে দাপুটে জয়ের পর দীর্ঘ দিনের প্রতিদ্বন্দ্বী পর্তুগিজ তারকার পারফরম্যান্সে মুগ্ধতা প্রকাশ করেন বার্সা অধিনায়ক।

প্রথম লেগ গোলশূন্য হওয়ার পর বুধবার ন্যু কাম্পে ফিরতি পর্বে লিয়ঁকে ৫-১ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠে ভালভেরদের দল। জোড়া গোল করার পাশাপাশি দুই সতীর্থের গোলে অবদান রাখেন ৩১ বছর বয়সি মেসি।

একদিন আগে অর্থাৎ মঙ্গলবার রোনান্ডোর অসাধারণ পারফরম্যান্সে দুর্দান্ত এক প্রত্যাবর্তনের গল্প লেখে জুভেন্তাস। অ্যাটোলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে প্রথম লেগে ২-০ গোলে হারা ইতালিয়ান দলটি ৩-০ গোলে জিতে দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠে।

লিয়ঁর বিপক্ষে ম্যাচ শেষে মেসি বলেন, ‘ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ও জুভেন্তাস যা করল তা ছিল অসাধারণ। আমি ভেবেছিলাম যে প্রতিপক্ষ হিসেবে আতলেতিকো মাদ্রিদ আরও কঠিন হবে। তিন গোল করে রোমাঞ্চকর একটা রাত কাটিয়েছে রোনাল্ডো।’ ক্ষুধার্ত রোনাল্ডোর অনবদ্য হ্যাটট্রিকে ভর করেই এদিন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের টিকিট নিশ্চিত হল জুভেন্তাসের। আর রোনাল্ডোর হ্যাটট্রিক দেখে গ্যালারিতে উপস্থিত গর্বিত বান্ধবী জর্জিনা রডরিগেজের চোখে আনন্দাশ্রু।

যদিও তুরিনে রোনাল্ডো কার্যত একার কাঁধে টেনে নিয়ে যান ওল্ড লেডিদের৷ মেসি এক্ষেত্রে কাতালান ক্লাবকে পরের রাউন্ডে তুলে নিয়ে যেতে পাশে পেলেন কুটিনহো, পিকে, দেম্বেলেদের৷ অলিম্পিক লিয়ঁর ঘরের মাঠে গোলশূন্য ড্র করে আসা বার্সেলোনা ন্যু ক্যাম্পে ফরাসি দলটিকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দেয় এবং রেকর্ড ১২ বার একটানা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের দরজা খুলে ফেলে৷

ক্লাব ফুটবলে ইউরোপ সেরা এই প্রতিযোগিতার কোয়ার্টার-ফাইনালের ড্র হবে আগামী শুক্রবার। তবে সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ নিয়ে মোটেও চিন্তিত নন মেসি। তিনি বলেন, ‘সব প্রতিপক্ষই কঠিন৷ উদাহরণস্বরূপ আয়াক্স (শেষ ষোলোয় যারা রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়েছে) দেখিয়েছে যে তরুণ সব খেলোয়াড় নিয়ে তারা দুর্দান্ত একটা দল। আর তারা কাউকেই ভয় পায় না।’ এছাড়াও মেসি বলেন, ‘যে দলের মুখোমুখিই আমরা হই না কেন, লড়াইটা কঠিন হবে। কঠিন চ্যালেঞ্জের জন্য আমাদের নিজেদের প্রস্তুত করতে হবে।’