মেক্সিকান ওয়েভে বিধ্বস্ত জার্মানি

মস্কো: হার দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু গতবারের চ্যাম্পিয়ন জার্মানির৷ মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে সবুজ ঘাসে বল পায়ে ঝড় তুলল মেক্সিকো৷ গ্যালারির মেক্সিকান ওয়েভের পাশাপাশি মাঠেও ঢেউ মেক্সিকানদের৷ প্রথমার্ধে মধ্য আমেরিকার এগারো যোদ্ধার সামনে জার্মানির ডিফেন্স চূর্ণ হওয়ার ছবি আজ যেন প্রতীকী৷  এরপর দ্বিতীয়ার্ধে একের পর এক চেষ্টা করেও গোলের দরজা খুলতে পারেনি জোয়াকিম লো’র ছেলেরা৷

২৪ ঘন্টা আগেই আইসল্যান্ডের ডিফেন্ডের সামনে ঘাম ঝরিয়েও মেসিরা গোলমুখ খুলতে পারেনি৷ এদিন প্রায় ডজন সুযোগ পেয়ে গোলের দেখা পেল না মুলাররা৷ উল্টে প্রথমার্ধে ৩৫মিনিটে লোজানোর গোলে এগিয়ে যায় মেক্সিকো৷ প্রতিআক্রমণে ঝড় তুলেই গোলের দেখা যায় মেক্সিকো৷ ফাইনাল বাঁশি বাজা পর্যন্ত সেই লিড ধরে রেখেই জার্মানির বিরুদ্ধে মেক্সিকোর ১-০ জয়৷ আইসল্যান্ডের বিরুদ্ধে মেসিদের ড্র-য়ের পর এবার জার্মানির হার রাশিয়া বিশ্বকাপের দ্বিতীয় অঘটন৷

২০১৪ মতো এবারও অঘটন দিয়েই বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করল চ্যাম্পিয়ন দল৷ শেষবার ২০১০ এর বিশ্বকাপ জয়ী স্পেন ব্রাজিলের মাটিতে নেদারল্যান্ডের কাছে ১-৫ হার দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করে৷ তার আগে ২০০২ সালে সেনেগালের কাছে ০-১ ব্যবধানে হার দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করেছিল ১৯৯৮এর বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স৷ ১৯৯০ বিশ্বকাপে ক্যামেরুনের কাছে ০-১ হেরেছিল ১৯৮৬ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্তিনা৷ সেই খাতায় এবার নাম লিখিয়ে ফেলল জার্মানরা৷ অন্যদিকে ১৯৮২ এর পর এই প্রথম বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ হারল জার্মান ব্রিগেড৷

শেষ বারের চ্যাম্পিয়নদের খেলা দেখে হতাশ ফুটবলদুনিয়া৷ আক্রমণে ঝড় তুলেও জার্মান দল কীভাবে গোলকানা হয়ে গেল, সেটাই এখন লাখ টাকার প্রশ্ন৷ ম্যাচে দুই অর্ধ মিলিয়ে মোট ২৬টি শট নিয়েছে জার্মানি, যার মধ্যে তেকাঠিতে ছিল ৯টি শট৷ প্রত্যেক বাড়েই অবশ্য মেক্সিকান গোলরক্ষক ওচোয়ার হাতে জার্মানদের আক্রমণ জমা পড়ে যায়৷ অন্যদিকে দুই অর্ধ মিলিয়ে কয়েকটি সহজ সুযোগ হাতছাড়া না করলেও জার্মানির বিরুদ্ধে জয়ের ব্যবধান বাড়াতে পারত মেক্সিকো৷

অন্যদিকে রাশিয়ার রণক্ষেত্রে প্রথম ম্যাচেই মন কাড়ল মেক্সিকো৷ জার্মানি গোলমিসের বন্যা দেখেও বলতে হয় মেক্সিকোর এই রক্ষণ টুর্নামেন্টে অন্য অনেক দলের কপালে ভাঁজ ফেলে দিতে পারে৷ সঙ্গে মেক্সিকানদের গতি৷ হারনানডেজ, ভেলাদের গতি দেখে বেলজিয়ামের মতো মেক্সিকোও ডার্ক হর্স বলতে ইচ্ছে করবে৷ ফুটবলভক্তদের মণিকোটায় দীর্ঘদিন থেকে যাবে জার্মানির বিরুদ্ধে মেক্সিকোর এই লড়াই৷

বিশেষজ্ঞরা অনেক কিছুই বিচার করবেন, কিন্তু সমর্থকরা গোল চান৷ সেই গোলের দরজার চাবিকাঠিটা যেন ড্রেসিং রুমে ভুলে রেখে এসেছিল জার্মানরা৷ একের পর এক মেক্সিকোর রক্ষণ ভেদে ছুটে গিয়েছে গোলার মতো সট৷ কিন্তু প্রতিবারই সেটা বিফলে গিয়েছে৷ ফুটবলীয় অঙ্কের আঁকিবুঁকি বলে দিয়েছে, জার্মানরা যেন গোলকানা হয়ে গিয়েছিলেন৷ প্রথম ম্যাচেই মুখ থুবড়ে পড়া কঠিন ইঙ্গিত দিয়ে গেল৷ পরবর্তী সময়ে এই দল কত কী করবে তা নিয়েই ধন্ধে পড়েছেন জার্মান ভক্তরা৷

আর মেক্সিকো ! বিশ্বকাপের আসর মানেই তাদের পরিচিতি গ্যালারি জুড়ে মানব ঢেউয়ের৷ সেই ঢেউয়ের চোরাঘূর্নিতে হাবুডুবু খেল জার্মানরা৷ সেই তরঙ্গের গতিতে বারে বারেই জার্মানির ঘাম ছুটে গিয়েছে৷ চিন্তায় মুষড়ে পড়ছিলেন বিশ্বখ্যাত কোচ জোয়াকিম লো৷ সাইড লাইনের ধারে বিষণ্ণ মুখে তাঁকে বারে বারে ফোকাস করল ক্যামেরা৷ ঘর্মাক্ত জার্মান শিবির তখন সান্ত্বনা খুঁজতে ব্যস্ত৷

শুভ সূচনা হল না গতবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের৷ পরবর্তী খেলাগুলিতে কি জয়ে ফিরবে জার্মানি ? বিশ্ব ফুটবলের রণভূমিতে ছড়িয়েছে সেই প্রশ্ন৷

Advertisement
---
-----