মুম্বই:  দুই পরিবারের অসম্মতি, সমাজের তীব্র অনুশাসন- এই সব পেরিয়ে মন আর শরীরের কাছাকাছি আসা। তথাকথিত ভাই-বোনের প্রেম, যুদ্ধ, ইর্ষা, ধনুকের ছিলটান আর সঙ্গে জন্মান্তরবাদ। বইয়ের পাতা থেকে সেলুলয়েডের পর্দায় সাহিবাঁ -মির্জার প্রেমকাহিনি। রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরা ও গুলজার হাত ধরে মুক্তি পেল ‘মির্জিয়া’ টিজার।mirza

অমিতাভ আসার আগেই ‘তিনবিভ্রাট’

ছবির টিজার দেখা যাচ্ছে বর্তমান সময়ের বাঁধনছেঁড়া প্রেমের সঙ্গে অতীতেরও ইশারা। এখানেই ওমপ্রকাশ মেহরার পরিচালনা আর গুলজার-এর চিত্রনাট্যের যুগলবন্দি। সঙ্গে বলিউডের দুই নবাগত। অনিল পুত্র হর্ষবর্ধন কাপুর। অন্যদিকে ঊষাকিরণ খের নাতনি সইয়ামি খের।

বলি-পাড়ার পোষ্য প্রীতি

পাঞ্জাবের লোককাহিনি বলে, একবার এক পুত্রসন্তানের জন্ম দিয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন মা। ওই একই সময়ে গ্রামের অন্য এক মহিলাও জন্ম দেন এক শিশুকন্যার। সেই পুত্রসন্তানকে তখন নিজের বুকের দুধ খাইয়ে বড় করেন ওই মহিলা। ছেলেটির নাম হয় খেওয়া খান। আর মেয়েটির নাম ছিল ফতেমা বিবি। যথা সময়ে ফতেমা বিবির বিয়ে হয়ে যায়। বিয়ে হয়ে যায় খেওয়া খানেরও! মাতৃদুগ্ধ ভাগ করে নেওয়া এই দুই ভাই বোনের সন্তানই মির্জা আর সাহিবাঁ। ফতেমার ছেলে মির্জা আর খেওয়ার মেয়ে সাহিবাঁ। এদের প্রেমকাহিনি নিয়েই ‘মির্জিয়া’।

লন্ডনে জিৎ-শুভশ্রী শপিং

ট্রেলার বলছে হর্ষবর্ধন আর সইয়ামির পক্ষে বলিউডে নিজের জায়গা করে নেওয়া খুব একটা শক্ত হবে না। কারণটা অবশ্যই ছবির প্রেক্ষাপট। ইতিহাস বলছে অলটাইম বিয়োগান্তক প্রেমের গল্প সাফল্য এনে দিয়েছে নবাগতদের। তা সে আমির খান-জুহি চাওলা হোক আর হালফিলেন অর্জুন কাপুর-পরিণীতি চোপড়া।

ট্রেলারটি দেখতে ক্লিক করুন:

https://www.youtube.com/watch?v=oBWkJBuK4NI

----
--