এইচডিএফসি ব্যাংক কর্তা খুনে জড়িত অফিস কর্মীরা, অনুমান পুলিশের

মুম্বই: চার দিন পর খোঁজ মিলল নিখোঁজ বেসরকারি ব্যাংক কর্তার৷ এইচডিএফসি ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট সিদ্ধার্থ সিংভির নিথর উদ্ধার হয় মুম্বই থেকে৷ এই ঘটনায় সরফরাজ শেখ(২০) নামে এক ওলা গাড়ির চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান সিদ্ধার্থকে খুন করা হয়েছে৷ ওলা চালক ছাড়াও সরফরাজ একজন ঠিকাদার শ্রমিক৷ সিদ্ধার্থকে খুন করতে তাকে সুপারি দেওয়া হয়েছে৷ পেশাগত প্রতিদ্বন্দ্বিতার জেরে এই খুন কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷ ইতিমধ্যে ব্যাংকের এক মহিলা ও তিন পুরুষ কর্মচারিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে৷

আরও পড়ুন: মোদী রাম, অমিত লক্ষণ আর আমি হনুমান’

দক্ষিণ মুম্বইয়ের মালাবার হিলস স্ত্রী ও এক আট বছরের ছেলেকে নিয়ে থাকতেন সিদ্ধার্থ। ২০০৭ সালে এইচডিএফসি ব্যাংকে যোগ দেন সিদ্ধার্থ৷ অতি অল্প সময়ের মধ্যে কাজে পদন্নোতি হয় তাঁর৷ সম্প্রতি আবার প্রমোশন পান তিনি৷ এতে সিদ্ধার্থের সমসাময়িক কর্মচারীরা অসন্তুষ্ট হন বলে প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছে পুলিশ৷ তাই এই খুনে অফিস কর্মীরা জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

- Advertisement -

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন বুধবার সকাল ৮.৩০টা নাগাদ অফিসে যাবেন বলে বাড়ি থেকে বের হন সিংভি৷ ওই দিন সন্ধে ৭.৩০ নাগাদ অফিস ছেড়ে বেরিয়ে যান তিনি৷ তার পর থেকেই তাঁর ফোন সুইচড অফ৷ কমলা মিলস কম্পাউন্ডের সিসিটিভি ফুটেজ থেকে দেখা যায় তিনি অফিস ছেড়ে বেরোচ্ছেন৷ কিন্তু তাঁর গাড়িটির গতিবিধি স্পষ্ট নয় ক্যামেরায়৷

আরও পড়ুন: বনধের সমর্থনে রাজপথে নামলেন রাহুল গান্ধী

এরপর নবি মুম্বইয়ের আরোলিতে সিদ্ধার্থের গাড়িটি পরিত্যক্ত অবস্থায় দেখতে পায় পুলিশ৷ সঙ্গে সঙ্গে সেটি বাজেয়াপ্ত করা হয়৷ গাড়ির সিটে রক্তের খোঁজ পায় পুলিশ বলে সূত্রের খবর৷ আরোলির সেক্টর ১১-এর কোপর খৈরানে এলাকা থেকে উদ্ধার হয়েছে নিখোঁজ সিদ্ধার্থের গাড়ি। গাড়ির পিছনের সিটে রক্তের দাগ মিলেছে। একটি ছুরিও পাওয়া গিয়েছে। গাড়িটি ফরেন্সিক পরীক্ষার জন্য পাঠায় নবি মুম্বই পুলিশ৷ এন এম যোশী মার্গ থানার কাছ থেকে সতর্কবার্তা পাওয়ার পরেই তল্লাশি শুরু করে নবি মুম্বই থানা৷ এখনও সাংভির খোঁজে তল্লাশি চলছে৷

Advertisement ---
-----