গুয়াহাটি: গোরু চোর সন্দেহে চার জনকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠল গোরক্ষকদের বিরুদ্ধে৷ ঘটনাটি ঘটেছে অসমের বিশ্বনাথ জেলার দীপলুংগা চা বাগানের কাছে৷ গোরক্ষকদের মারে একজনের মৃত্যু পর্যন্ত হয়েছে৷ মৃতের নাম দেবেন রাজবংশী৷ গুরুতর জখম তাঁর তিন সঙ্গী৷ বেসরকারি হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা চলছে৷ পুলিশ অবশ্য জানিয়েছে, ওই চারজন গোরু পাচারের সঙ্গে যুক্ত৷ তাদের হেফাজত থেকে গোরুও উদ্ধার হয়েছে৷

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাজধানী গুয়াহাটি থেকে ২৩০ কিমি দুরে বিশ্বনাথ জেলাতে৷ সাত সকালে গুজব ছড়ায় একটি টেম্পো ভ্যানে করে চার জন যুবক গোরু চুরি করেছে৷ এরপরই টেম্পোটির পথ আটকায় গ্রামবাসীরা৷ লাটি সোটা ও লোহার রড নিয়ে তাদের উপর হামলা করা হয়৷ গাড়ির চালক পালিয়ে গেলেও চারজনকে বেদম প্রহার করা হয়৷ ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজও প্রকাশ্যে এসেছে৷ তাতে দেখা গিয়েছে, একজন হাত জোর করে গ্রামবাসীদের কাছে প্রাণ ভিক্ষা করছে৷ বাকি তিনজনকে তখন উত্তম মধ্যম পেটাতে ব্যস্ত গ্রামবাসীরা৷

Advertisement

পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে দেবেনকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়৷ বাকি তিন জন ফুলচাঁদ, বিজয় নায়েক ও পুজেন রাজবংশীর চিকিৎসা চলছে৷ তাদের মুখে, ঘাড়ে, গলায়স কোমরের আঘাত গুরুতর৷ আহত একজনের দাবি, তারা শুয়োর কিনতে দীপলুংগা চা বাগানের কাছে গিয়েছিলেন৷ কিন্তু হঠাতই তাদের উপর জনা কুড়ি জনের একটি দল হামলা করে৷ লাটি, লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মারা হয়৷ তাদের বিরুদ্ধে গোরু চুরির অভিযোগ আনা হয়৷

যদিও পুলিশ ওই তিন জনের দাবি উড়িয়ে দিয়েছে৷ জানিয়েছে, শুয়োর কিনতে যাওয়ার কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি৷ তবে ওই টেম্পো ভ্যান থেকে দু’টি গোরু উদ্ধার হয়েছে৷ পাচারের উদ্দেশে গোরু দু’টি চুরি করা হয়েছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ৷ গোরু চুরির একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷ অভিযুক্তরা একটু সুস্থ হয়ে উঠলে তাদের বক্তব্য রের্কড করা হবে৷ এখনও অবধি কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি৷

----
--