‘সস্তায় পেট্রল, ডিজেল বিদেশে বিক্রি করছে মোদী সরকার’

নয়াদিল্লি: নোটবন্দি, রাফায়েল যুদ্ধবিমানের পর এবার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পেট্রল ও ডিজেলের দামবৃদ্ধি নিয়ে বোমা ফাটাল কংগ্রেস৷ সরকারের বিরুদ্ধে তেল লুঠের অভিযোগ আনল রাহুলের দল৷ অভিযোগ, দেশের মানুষের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে সস্তায় পেট্রল ও ডিজেল বাইরের দেশগুলিতে বিক্রি করে দেওয়া হচ্ছে৷ আর এখানে চড়া দামে তেল কিনতে বাধ্য হচ্ছে আম জনতা৷ কংগ্রেসের হুঁশিয়ারি এর জবাব বিজেপিকে ভোটবাক্সে দেবে সাধারণ মানুষ৷

শুক্রবার কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা জানান, তেলের দাম বাড়ছে৷ সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস হওয়ার জোগাড়৷ আর জনগণের টাকা লুঠ করছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ মোদী সরকার সস্তায় পেট্রল ও ডিজেল বাইরের দেশগুলিতে বিক্রি করছে৷ আর দেশে তেলের দামের রেকর্ড বৃদ্ধি হচ্ছে৷ তাঁর দাবি, সরকার তেলের উপর যে বিরাট শুল্ক চাপায় তার থেকে ১১ লক্ষ কোটি টাকা ইতিমধ্যে লাভ করেছে৷

- Advertisement -

রণদীপ সুরজেওয়ালা জানান, দেশে পেট্রল ও ডিজেলের দাম যথাক্রমে ৭৮-৮৬ ও ৭০-৭৫ টাকার মধ্যে ঘোরাফেরা করছে৷ কিন্তু তথ্য জানার অধিকার আইনে এটা ফাঁস হয়েছে যে মোদী সরকার ১৫টি দেশে প্রতি লিটার পেট্রল ৩৪ টাকা ও ২৯টি দেশে প্রতি লিটার ডিজেল ৩৭ টাকা মূল্যে বিক্রি করেছে৷ সেই দেশের তালিকায় আছে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, আমেরিকা, মালয়েশিয়া ও ইজরায়েল৷ এই ভাবে দেশের মানুষের পিঠে ছুরি মারছে বিজেপি সরকার৷

তিনি দাবি করেন, কংগ্রেস বরাবরই পেট্রল ও ডিজেলকে পণ্য পরিষেবা করের আওতায় আনার দাবি জানিয়ে এসেছে৷ কিন্তু সরকার সেই দাবি মানতে নারাজ৷ বিজেপি সরকারের আচ্ছে দিনকে কটাক্ষ করে কংগ্রেসের মুখপাত্র জানান, বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর ১৪ বার তেলের উপর অন্তঃশুল্ক বাড়িয়েছে৷ ২০১৪ সালের মে মাসে প্রতি লিটার পেট্রলের উপর ৯.২ পয়সা অন্তঃশুল্ক ছিল৷ ডিজেলের ক্ষেত্রে তা ছিল লিটার পিছু ৩.৪৬ পয়সা৷ এখন পেট্রল ও ডিজেলের উপর সেই অন্তঃশুল্ক বেড়ে হয়েছে যথাক্রমে ১৯.৪৮ পয়সা ও ১৫.৩৩ পয়সা৷

Advertisement ---
-----