নয়াদিল্লিঃ  রাম মন্দির ইস্যুতে তোপ দাগলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। একই সঙ্গে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তোপ দেগে বলেন, রাম মন্দির ইস্যু সমাধান হোক, চায় না কংগ্রেস। তাই আইনি পথে বারবার বাধা সৃষ্টি করছে। আজ শনিবার দিল্লিতে বিজেপির জাতীয় কনভেশনে এসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এভাবেই কংগ্রেসকে কটাক্ষ করলেন।

বিরোধীদের কটাক্ষ করে নরেন্দ্র মোদী আরও বলেন, “বারবার আইনি পদ্ধতিকে প্রভাবিত করছে কংগ্রেস। ওরা রাম মন্দির নিয়ে কোনও সমাধান চায় না। আমরা এই মানসিকতাকে কোনও দিন ভুলব না। মানুষকেও ভুলতে দেবও না।” কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বলকে উদ্দেশ্য করে কটাক্ষ করেন মোদী।

তবে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, মুখে কংগ্রেসের কথা বললেও রাম মন্দির ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী বার্তা দিলেন আরএসএস এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদকেও। লোকসভা ভোটের আগে অর্ডিন্যাস জারি করে রাম মন্দির তৈরির উপর জোড়াল সওয়াল চালাচ্ছেন আরএসএস এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। যদিও সেটা যে সম্ভব না তা আগেই জানিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। চলতি বছরের শেষে সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকারে মোদী জানান, কখনই অর্ডিন্যাস এনে রামমন্দির আনা সম্ভব নয়। আদালতের রায়ই শেষ কথা বলবেন বলে স্পষ্ট জানান মোদী।

এদিন দলের জাতীয় পরিষদের বৈঠক শেষে তাঁদেরও বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী। কয়েকদিন আগেই রামমন্দির ইস্যুতে কোনও স্পষ্ট রায় দিতে পারেনি সুপ্রিম কোর্ট। ভোটের আগে বিজেপির কাছে যা ধাক্কা বলেই মনে হচ্ছে। অন্যদিকে, আর দেরি করতে নারাজ আরএসএস এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। গেরুয়া দলটির উপর তারা চাপ দিতে থাকে মন্দির তৈরির। সেই সময়ে বিষয়টি নিয়ে মুখ খোলেননি বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব।

কিন্তু এদিন মুখে এক ঢিলে দুই পাখি মারার চেষ্টা করলেন মোদী। এমনটাই মত রাজনৈতিকমহলের। একই সঙ্গে মহলের মতে, রামমন্দির না হওয়ার পিছনে আদৌতে যে কংগ্রেসই দায়ী সেটাও সাধারণ মানুষকে বোঝানোর চেষ্টা করলেন নমো।

--
----
--