শিকাগো: ১৮৯৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ১১ তারিখে আমেরিকার শিকাগো শহরের অনুষ্ঠিত ধর্ম সম্মেলন জয় করেছিলেন বিবেকানন্দ। বাঙালি নরেন্দ্রনাথ দত্তের সেই বিশ্ব জয় নিয়ে গর্বিত সকল ভারতীয়।

সেই ঘটনার ১২৫ পরে ফের ওই শহরে অনুষ্ঠিত হল হিন্দু ধর্মের সম্মেলন। সেখানে বার্তা পাঠালেন আরেক ভারতীয়। এবং তিনিও নরেন্দ্র। তবে দত্ত নয়, মোদী।

Advertisement

আরও পড়ুন- যুগাবতার শ্রীরামকৃষ্ণ ও মোদীকে একই আসনে রাখলেন বিজেপি নেতা

শুক্রবার আমেরিকার শিকাগো শহরে শুরু হয়েছে বিশ্ব হিন্দু কংগ্রেসের দ্বিতীয় সম্মেলন। যেখানে উপস্থিত ছিলেন আড়াই হাজার সদস্য। এছাড়াও ছিলেন বিশ্বের ৬০টি দেশের হিন্দুত্ববাদী নেতা। সশরীরে সেখানে উপস্থিত না থাকতে পারেননি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে পাঠিয়েছিলেন তাঁর বার্তা। সম্মেলনের শুরুতেই তা শোনানো হয়।

এক হতে হবে বিশ্বের সকল হিন্দুকে। এর জন্য প্রয়োজনে নেওয়া হোক প্রযুক্তির সাহায্য। এমনই দাবি করলেন ভারতের অরধানমন্ত্রি নরেন্দ্র মোদী। প্রযুক্তির সাহায্যেই বিশ্বের সকল হিন্দু এক সূত্রে বাধা থকতে পারবে। একই সঙ্গে হিন্দু ধর্মের দর্শন সম্পর্কেও সকলে অবগত হতে পারবে বলে জানিয়েছেন মোদী।

আরও পড়ুন- এখন বিশ্বের অন্যতম গতিশীল অর্থনীতি ভারত: নরেন্দ্র মোদী

মোদীর বার্তায় বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে প্রযুক্তি। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করেই বিশ্বের সর্বত্র হিন্দু ধর্মের মতাদর্শগুলিকে ছড়িয়ে দেওয়ার কথা বলেছেন মোদী। তাঁর প্রেরিত বার্তা অনুসারে, “হিন্দুর ধর্মের প্রাচীন মহাকাব্যগুলিকে ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রচারের মাধ্যমে বিশ্বের সকল হিন্দু একত্রিত হতে পারে। ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছেও তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ হবে।” একই সঙ্গে তিনি আরও বলেছেন, “বর্তমানের এই প্রযুক্তির যুগে সম্মেলনে উপস্থিত সকল সদস্যের উচিত প্রযুক্তির মাধ্যমে সকলকে যুক্ত করা। আরও বেশি করে হিন্দু মতাদর্শের মাধ্যমে আবদ্ধ করা যায় তা নিয়ে ভাবা উচিত।”

আরও পড়ুন- বন্ধের পথে কাঁথি সংস্কৃত কলেজ, নষ্ট হবে অমূল্য বইয়ের সম্ভার

মানব সভ্যতার সূচনা লগ্নের সঙ্গে হিন্দু ধর্ম জড়িয়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন মোদী। সেই ধর্মের গুপ্ত জ্ঞান, বুদ্ধিমত্তা এবং সংস্কৃতি সর্বত্র ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। শিকাগোতে মোদীর বার্তা পাঠ করেন বিশিষ্ট আমেরিকার প্রবাসী ভারতীয় ভারত বরাই।

----
--