‘নমস্কারের ভঙ্গিতে স্বাগত’! মমতাকে ‘কৃতজ্ঞতা’য় বিঁধলেন মোদী

স্টাফ রিপোর্টার, মেদিনীপুর: সরকারি অনুষ্ঠান হোক বা দলীয় সভা। বছর জুড়েই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় চোখে পড়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতজোড় করা ছবি। কাট আউট কিংবা পোস্টার, দলনেত্রীকে মুখ হিসেবে তুলে ধরা হয় বিভিন্ন জায়গায়। তবে , সোমবার মেদিনীপুরের রাস্তা জুড়ে লাগানো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবিগুলির গুরুত্ব ছিল অন্য পর্যায়ের। হাতজোড় করা মমতার ছবি দিয়ে বানানো গেট, উপরে লেখা ‘ধর্মতলা চল’। সেই গেটের ভিতর দিয়েই এগিয়ে গেল প্রধানমন্ত্রী কনভয়। তাই মঞ্চ থেকে যে মোদী ‘দিদি’কে জবাব দেবেন সেটা প্রত্যাশিত ছিল।

সকাল থেকেই বিজেপি নেতারা বিষয়টা বারবার টেনে আনছিলেন সংবাদমাধ্যমের সামনে। সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়, রাহুল সিনহা প্রত্যেকেই তৃণমূলের এই ‘রাজনীতি’কে কটাক্ষ করেন। তবে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মঞ্চে উঠে সরাসরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যাবকে কটাক্ষ করেন।

এদিন মঞ্চ থেকে মোদী বলেন, ”মমতার কাছে আমি খুব কৃতজ্ঞ৷ উনি হাতজোড় করে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানালেন৷ আমাদের স্বাগত জানাতে তৃণমূলকেও পোস্টার লাগাতে হল৷” এই ভাষাতেই তৃণমূল তথা মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধলেন মোদী। ধন্যবাদও জানাতে ভুললেন না মমতাকে। মুখ্যমন্ত্রী যেভাবে নমস্কারের ভঙ্গিতে (মঞ্চেই করে দেখালেন সেই ভঙ্গি) স্বাগত জানিয়েছেন, তাতে তিনি কৃতজ্ঞ বলেও উল্লেখ করেন মোদী

- Advertisement -

এদিন যে পথ দিয়ে বিজেপি সমর্থকেরা সভার দিকে এগিয়েছেন, সেই সভার রাস্তার দু-ধারে দু-তিন পা অন্তর ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের লাইফ-সাইজ কাট-আউট৷ হাত জোড় করা সেই ছবি দেখে মনে হবে পিসি-ভাইপো একসঙ্গে যেন প্রধানমন্ত্রীকেই স্বাগত জানাচ্ছেন৷ ৭৫ হাজার ছোট-বড় লাইফ-সাইজ কাট-আউট লাগানো হয় সেখানে। সঙ্গে দেওয়া হয়েছে উন্নয়নের খতিয়ানও।

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের সফরেও মমতার ছবিতে ঢেকে গিয়েছিল পুরুলিয়া৷ পরে সেটাকে কটাক্ষ করতেও ছাড়েননি মোদীর এই ডানহাত৷ জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে অমিত বলেছিলেন, ”আমাকে দেখানোর জন্যই মমতাজি এইসব করেছেন।”

Advertisement
---