বামদের মিছিলে স্লোগান উঠল ‘মোদীর বড় সমর্থক মমতা’

ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ‘মোদীর বড় সমর্থক মমতা৷’ এই স্লোগানেই কলকাতা মুখোরিত হল বনধের সমর্থনে বামেদের মিছিল৷ কংগ্রেস ও বামেদের ডাকা বনধ মোদী সরকারের কার্যকলাপের বিরুদ্ধে ৷ বনধের দিনেও বাংলা সচল রাখতে সচেষ্ট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার৷ আপাতত এই দু’টি বিষয়কে এক সূত্রে বেধে বাম নেতৃত্ব ‘মোদী-মমতা আঁতাত’ মানুষের সামনে তুলে ধরতে মরিয়া৷

জ্বালানী তেলের দাম বৃদ্ধি, টাকার দামের পতন সহ একাধিক কেন্দ্রীয় নীতির বিরোধীতায় বনধের ডাক দিয়েছে বাম ও কংগ্রেস৷ বনধের ইস্যুগুলিকে নৈতিক সমর্থন করছে তৃণমূল কিন্তু এই রাজনৈতিক দলটি এখন কোনও ভাবে বনধের সমর্থক নয়৷ ফলে এদিন তৃণমূল উঠে পড়ে লেগেছে এই বনধ ব্যর্থ করে দিতে ৷ তৃণমূলের এমন আচরণকে রাজনৈতিক কাজে লাগাতে উঠে পড়ে লেগেছে এখন বামেরা৷ ফলে মোদীর পাশাপাশি মমতাকে আক্রমণে নেমে পড়েছে মিছিলে অংশ গ্রহণকারীরা৷

বনধ সমর্থনে এদিন এন্টালি থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত মিছিল করে বাম দলগুলি৷ সেই মিছিলে মোদীর সঙ্গে মমতাকে এক করে দেখানোর চেষ্টা করেন মহম্মদ সেলিম, সুজন চক্রবর্তীরা৷ সিপিএম সাংসদ ও পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম বলেন, ‘‘বনধ সর্বাত্মক৷ মানুষের রাগ ছিল কেন্দ্রের বিরুদ্ধে৷ সেই অসন্তোষ বাস, ট্রাম চালিয়ে দমানোর চেষ্টা করেছিলেন মমতা’র সরকার৷ কিন্তু রাজ্যের চেহারাই বলে দিচ্ছে বনধ সমর্থন করেছেন সাধারণ রাজ্যবাসী৷ মোদীর সঙ্গে মমতার বিরুদ্ধেও রায় দিলেন মানুষ৷’’সিপিএম বিধায়ক ও বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তীর মতে, ‘‘বাস গ্যারাজ থেকে জোড় করে বার করে চালাতে বাধ্য করেছে রাজ্য৷ ফাঁকা বাস চলছে শহরের বুকে৷’’

- Advertisement -

সেলিম, সুজনদের দাবি, বিজেপি বনধের বিরোধীতা করবে স্বাভাবিক৷ কিন্তু তৃণমূলও প্রশাসনের মাধ্যমে রাজ্যকে সচল রাখতে চেয়ে প্রকারন্তরে বনধের বিরোধীতাই করেছে৷ এখান থেকেই স্পষ্ট মুখে গেরুয়া বাহিনীর বিরোধীতা করলেও আদতে তাদেরই সঙ্গে রয়েছে তৃণমূল৷ আর এই বিষয়টিকেই মানুষের সামনে তুলে ধরতে চাইছে এবার আলিমুদ্দিন স্ট্রিট৷

Advertisement ---
---
-----