ডিকার গোলে বাগানের জয়

কলকাতা: কলকাতার ফুটবলে এমন ছবি অতি পরিচিত হয়ে উঠেছে৷ বরং বলা ভালো সবুজ-মেরুন সমর্থকরা ডিকার গোলে মোহনবাগানের জয়ের ছবি দেখতে অভ্যস্থ হয়ে গিয়েছেন৷ অন্যথা হল না এবারও৷ জর্জ টেলিগ্রাফের বিরুদ্ধে কলকাতা ফুটবল লিগের ম্যাচে যখন গোলের খোঁজে হন্যে হয়ে ঘুরছিল বাগান, তখন পরিত্রাতা হয়ে দেখা দেন সেই দিপান্ডা ডিকাই৷ তাঁর গোলেই ঘরের মাঠে কাঙ্খিত জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় শংকরলালের চক্রবর্তীর দল৷

পাঠচক্র ও রেনবো এফসি’র বিরুদ্ধে লিগের প্রথম দু’ম্যাচে জয় তুলে নেওয়া মোহনবাগান তৃতীয় ম্যাচে জর্জ টেলিগ্রাফকে ১-০ গোলে পরাজিত করে৷ ৭২ মিনিটে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেন ডিকা৷

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ থেকে শিক্ষা নিয়ে এগোতে চান বাগান কোচ

জর্জের বিরুদ্ধে ম্যাচের প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকে৷ দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণের চাপ বাড়ালেও জর্জের রক্ষণ ভাঙা কিছুতেই সম্ভব হচ্ছিল না৷ ৬৯ মিনিটে পরিবর্ত হিসাবে মোহন কোচের তীর্থঙ্করকে নামানোর সিদ্ধান্তটাই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেয়৷

পিন্টু মাহাতোর জায়গায় মাঠে নামার তিন মিনিটের মধ্যে তীর্থঙ্করই দিপান্ডাকে গোলের পাস বাড়ান৷ ম্যাচের ৭২ মিনিটে মিনিটের মাথায় তীর্থর সেন্টার থেকেই বাগানের হয়ে হেডে গোল করেন ক্যামেরুনের স্ট্রাইকার৷

আরও পড়ুন: সাত রঙ ফিকে করে জয়ে ফিরল সাদা-কালো

অবশ্য ম্যাচ থেকে মোহনবাগানের তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করেন গোলকিপার শংকর৷ সেকেন্ডের ভগ্নাংশের ব্যবধানে জর্জের জোড়া আক্রমণ প্রতিহত করে বিপর্যয় রোধ করেন তিনি৷ ৮৬ মিনিটে শুভ কুমারের বাঁ-পায়ের ফ্রি-কিকে মাথা ছুঁইয়ে হ্যারি বাগানের তেকাঠিতে বল ঢোকানের চেষ্টা করলে শংকর ঢাল হয়ে দাঁড়ান৷ তাঁর দস্তানায় বল প্রতিহত হয়ে ফেরার সময় ফিরতি বলে হেড করেন নাকামুরা৷ এবারও তা শংকরের দেওয়ালে আটকে যায়৷ ক্রসবারের উপর দিয়ে বল মাঠের বাইরে বার করে দেন মোহন গোলরক্ষক৷

আরও পড়ুন: বাগান জার্সি খুলে রাখতে চলেছেন মেহতাব

ম্যাচে আরও কয়েকটা দুরন্ত সেভ করেন শংকর৷ স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন তিনি৷ সেদিক থেকে বলা যায় জর্জের বিরুদ্ধে শংকরলালের তরি ডুবতে দিলেন না শংকর৷ রবিবাসরীয় মোহনবাগান মাঠে ম্যাচ দেখতে হাজির ছিলেন টুটু বসু ও অঞ্জন মিত্র৷

----
-----